Story

জন্ম চীনে, তারপর লন্ডন ঘুরে এখন শেষ ঠিকানা ভারত! রইল ক্যাটরিনা কাইফের বলিউড সুপারস্টার হয়ে ওঠার গল্প

জন্মেছেন বিদেশে। বড়ও হয়েছেন সেখানে। কিন্তু বর্তমানে তিনি বলিউডের প্রথম সারির অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী। সম্প্রতি রাজস্থানের বারওয়ারা ফোর্টে নিজের ভালোবাসার মানুষের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন অভিনেত্রী। এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝে গিয়েছেন কার কথা বলছি! হ্যাঁ ঠিকই ধরেছেন বলিউডের অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফের কথাই বলা হচ্ছে। আজ এই সুন্দরীর বলিউডি ডিভা হয়ে ওঠার কথাই জানাবো আপনাদের।

অভিনেত্রী চীনের হংকং শহরে ১৯৮৩ সালে জন্মেছেন। জন্মের পর তার বাবা-মা তার নাম রেখেছিলেন ক্যাটরিনা তুরকোত্তে। তবে জন্মের পর বাবা-মায়ের সাথেই বিভিন্ন দেশ ঘুরেছেন তিনি। পরে তার বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার পর শেষ পর্যন্ত লন্ডনে থাকা শুরু করেন তিনি। সেখানেই মডেলিংয়ের দুনিয়ায় পা রাখেন অভিনেত্রী। সেখানকার নাগরিকত্ব পেয়ে যান ক্যাটরিনা।

এরপরে লন্ডনের একটি ফ্যাশন শোতে অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি। সেই ফ্যাশন শোতেই ভারতীয় পরিচালক কাইজাদ গুস্তাদের কাছ থেকে প্রথম ছবিতে অভিনয় করার অফার পান ক্যাটরিনা। ২০০৩-এ ‘বুম’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে বলিউডে ডেবিউ ঘটে ক্যাটরিনা কাইফের। এরপরে নিজের সৌন্দর্য এবং অভিনয় দক্ষতার জন্যই খুব তাড়াতাড়ি বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন হয়ে ওঠেন।

শুরুতে তার উচ্চারণ একেবারেই ভারতীয়দের মধ্যে ছিল না। একেবারেই অ্যাংলো ইন্ডিয়ানদের মত কথা বলতেন তিনি। তার সৌন্দর্য প্রতিমুহূর্তে নজর কাড়তো দর্শকদের। নিজেকে ভারতীয়দের মত করে তুলতে অনেক পরিশ্রম করেছেন তিনি। বর্তমানে যেকোন অনুষ্ঠানে তাকে শাড়ি পড়ে যেতে দেখা যায়। বর্তমানে তিনি একেবারে ভারতীয় অভিনেত্রী হয়ে উঠেছেন। সম্প্রতি বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা ভিকি কৌশলের সাথে গাঁটছড়া বেঁধেছেন তিনি। ভিকি-ক্যাটের জুটি এখন একেবারে হিট।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!
Back to top button