Story

প্রতি মাসে মায়ের জন্য ৯৬ হাজার টাকা খরচ হতো সোহিনীর, ১৫ বছরে একদিনও ছুটি নেননি সোহিনী, তবুও শেষ লড়াই করেও মাকে বাঁচাতে পারেননি অভিনেত্রী

টেলিভিশনের ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী হেলেনের সোহিনী সান্যাল। বহু ধারাবাহিক, রিয়েলিটি শো’র মাধ্যমে আমরা দেখতে পেয়েছি সোহিনী কে। বর্তমানে সোহিনী কে আমরা গাঁটছড়া ধারাবাহিকে ঋদ্ধিমান এর কাকিমার ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখতে পাচ্ছি। টিভির এপার থেকে আমরা যারা ধারাবাহিকের মানুষগুলোকে দেখি তারা ভাবি যে ওপারের অভিনেতা-অভিনেত্রীদের জীবন কত সুন্দর, ঝাঁ চকচকে কিন্তু আসলে কি তাই? সব মানুষের জীবনে কোন না কোন গল্প থাকে আজ জেনে নেবো অভিনেত্রী সোহিনী সান্যাল এর জীবনের কিছু গল্প।

যারা নিয়মিত ধারাবাহিকের সঙ্গে যুক্ত তারা প্রত্যেকেই সোহিনীকে চেনেন। দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে টেলিভিশন জগতের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে সোহিনী। বিভিন্ন চরিত্রে তাকে একাধিকবার দেখা গিয়েছে, তবে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেনি সে। কিন্তু তার জনপ্রিয়তা বিপুল। সম্প্রতি দিদি নাম্বার ওয়ানে এসে নিজের জীবনের কিছু ঘটনা রচনা ব্যানার্জির সঙ্গে ভাগ করে নিলেন সোহিনী। তার কথা শুনলে মনে হবে না যে এত সুন্দর হাসিখুশি একটা মানুষের ভিতর এত কষ্ট, আক্ষেপ জমা রয়েছে।

সোহিনী তার মায়ের অত্যন্ত প্রিয়। মা তার কাছে ছিল বন্ধুর মত। মাকে খুব ভালোবাসেন সোহিনী। মায়ের অসুস্থতার জন্য প্রতি মাসে ৯৬ হাজার টাকা খরচ হতো তার। সারাজীবন মাকে সুস্থ করে তুলতে তার কখনো ইন্ডাস্ট্রি থেকে ব্রেক নেওয়া হয়নি বিগত ১৫ বছরে কখনো কোনো ছুটি নেননি সোহিনী। শুধুমাত্র মাকে সুস্থ করে তুলবেন বলে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে দিন রাত পরিশ্রম করতেন। কিন্তু ভাগ্যের পরিহাস সহায় হয়নি সোহিনীর। শেষ লড়াই করে ও মাকে বাঁচাতে পারেননি সোহিনী। বর্তমানে স্বামী এবং পোষ্য কে নিয়ে সংসার তার।

Back to top button