Story

গোয়াল ঘরে পড়াশোনা করেই আজ হাইকোর্টের বিচারপতি রাজস্থানের এক দুধ বিক্রেতার কন্যা, কঠিন সময় পেরিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি হলেন দুধওয়ালার এই মেয়েটি

রাজস্থানের উদয়পুরের এক দুধ বিক্রেতার কন্যা সোনাল শর্মা। ২০১৩’তে রাজস্থানের জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছিলেন সোনাল। বর্তমানে তিনি হাইকোর্টের বিচারপতি। তিনি নিজের স্বপ্নপূরণ করেছেন। সেই পথ খুব একটা মসৃণ ছিল না। তাকে যেতে হয়েছে অনেক ওঠাপড়ার মধ্যে দিয়েই। আজ সোনাল শর্মার স্বপ্নপূরণের গল্প জানাব আপনাদের।

সোনাল শর্মার বাবা একজন দুধ বিক্রেতা, মা গৃহবধূ। তবে তিনি এই অভাবের সংসারে দুচোখে স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে গিয়েছেন। অর্থাভাব থাকলেও তিনি থেমে যাননি। তার ব্যায়বহুল পড়াশুনার চালানো তার পরিবারের পক্ষে সম্ভব ছিল না। তবে তিনি কারোর কাছ থেকে কোন সাহায্য না নিয়ে নিজের চেষ্টাতেই নিজের লক্ষ্যে পৌঁছেছেন। তিনি সাইকেল চালিয়ে অনেকটা পথ অতিক্রম করে যেতেন কলেজে। গোয়াল ঘরে বসেই করতেন পড়াশোনা। তেলের ক্যানকে টেবিল বানিয়েই করতেন পড়াশোনা। পড়াশোনার পাশাপাশি গোয়াল ঘরের গরুদের যত্নও করতেন তিনি।

একজন দুধ বিক্রেতার কন্যা বলে তিনি কম অপমান সহ্য করেননি। এমনকি অনেক সময় অনেকের কাছে হাসির পাত্র হয়ে উঠেছিলেন সোনাল। তবে তিনি কোনো কিছুতেই থেমে যাননি। নিজের স্বপ্ন পূরণ করে হাইকোর্টের বিচারপতি হয়েছেন তিনি। সম্প্রতি রাজস্থান আদালত জানিয়ে দিয়েছে সোনাল শর্মাকে প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট পদে নিয়োগ করা হবে। নানারকম ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছাতে হয়েছে তাকে। বর্তমানে তিনি বহু মানুষের কাছে অনুপ্রেরণা। তার এই লড়াইয়ের গল্প আশা জাগাবে অনেকের মনে।

Back to top button