টলিউড

কলকাতা বইমেলায় পকেটমার এই টলিউড অভিনেত্রী আসলে বাস্তবে কে? অবশেষে সামনে এলো তথ্য, রইলো তার আসল পরিচয়

এর আগে আমরা বাসে, ট্রেনে, মেলায় অনেক পকেটমারের গল্পই শুনেছি। কিন্তু এবারের কলকাতা বইমেলায় যেই পকেটমারের খোঁজ পাওয়া গেলো তিনি স্বয়ং টলিউডের একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী। হ্যাঁ ঠিকই শুনছেন টলিউডের অভিনেত্রী রূপা দত্ত সম্প্রতি কলকাতা বইমেলা তে পকেটমারী করতে গিয়ে ধরা পড়ে কলকাতা পুলিশ এর হতে। তদন্ত করে তার কাছ থেকে মোট ৭৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আর এরকম পরিচিত একজন অভিনেত্রী কে এই ধরনের কাজ করতে দেখে আকাশ ভেঙে পড়ে সকলের মাথায়। তারপর থেকে প্রত্যেকের মনে একটাই প্রশ্ন কেনো তিনি এই কাজ করেছেন?

রূপা দত্ত টলিউডের বেশ পরিচিত মুখ। ইতিমধ্যেই বেশকিছু ছবিতেও অভিনয় করেছেন তিনি। জিৎ এর সাথী সিনেমাতে অভিনয় এর সুযোগ পেয়েছিলেন। এরপর বড় কাজের খোঁজে মুম্বাই তে পাড়ি দেন। সেখানেও বেশকিছু ধারাবাহিকে কাজ করার সুযোগ আসে। হিন্দি টেলিভিশন জগতে ‘জয় মা বৈষ্ণ মাতা’ ধারাবাহিকে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

এছাড়াও তিনি বলিউডের পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ ও মহেশ ভাটের নামে যৌন হেনস্তার আরোপ লাগান। ২০২০ সালে পায়েল ঘোষ নামের একজন অনুরাগ কাশ্যপ এর নামে এই অভিযোগ করেন এবং রূপা তাকে সমর্থন করেন। এর পাশাপাশি অনুরাগের বিরুদ্ধে ড্রাগ নেওয়ার অভিযোগও জানিয়েছিলেন তিনি। পরে অবশ্য তদন্ত করে জানা যায় অনুরাগ কাশ্যপ এর সাথে জড়িত ছিলেন না। রুপাকে যিনি মেসেজ পাঠিয়ে ছিলেন তিনি অনুরাগ সফর নামের এক অন্য ব্যাক্তি।

অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেকে পরিচালক, অভিনেত্রী, লেখিকা, সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্ট বলে পরিচয় দেন। এছাড়াও তিনি নিজেকে অ্যাক্টিং একাডেমির মালিক বলে দাবি করেন। এছাড়াও তিনি মহিলাদের নিয়ে কাজ করেন বলে জানা যায়। শনিবার সন্ধ্যায় কলকাতা বইমেলাতে রূপার সন্দেহজনক আচরণ লক্ষ্য করে পুলিশ। এরপর মহিলা কনস্টেবল ডেকে এনে তাকে পাকড়াও করা হয়। নিয়ে যাওয়া হয় বিধাননগর পুলিশ স্টেশনে। সেখানেই তার কাছ থেকে অসংখ্য মানিব্যাগ ও প্রায় ৭৫ হাজার নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়। এখনো জিজ্ঞাসাবাদে কোনোকিছু স্বীকার করেনি রূপা কিন্তু পুলিশের সন্দেহ রূপা বড় কোনো চক্রের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে।

Back to top button