টলিউড

“তবে কি দ্বিতীয় বিয়ে সেরে ফেললেন?” – স্বামীর সাথে কোন সম্পর্ক নেই এদিকে সিঁথি ভর্তি সিঁদুর পায়ে আলতা পড়ে ছবি শ্রীলেখার! ছবি দেখে প্রশ্ন করছেন নেটিজেনরা

শ্রীলেখা মিত্র, বাংলা অভিনয় জগতের জনপ্রিয়তা থেকে বেশি সমালোচিত নাম। কোন কিছুতেই বক্তব্য রাখতে বাদ যাননা অভিনেত্রী। তবে কিছুদিন আগে এই অভিনেত্রী অভিনয়ের পাশাপাশি যোগ দিয়েছেন পরিচালনার কাজেও। সম্প্রতি পরিচালক শ্রীলেখা মিত্র পরিচালিত স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি “এবং ছাদ” নন্দনে প্রদর্শিত হয়েছে। নিজের কাজের পাশাপাশি অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ ভালো রকম অ্যাক্টিভ থাকেন। নিজের জীবনের বিভিন্ন ছোট-বড়ো আপডেটের ছবি বা ভিডিও পোস্ট করেন অভিনেত্রী।

আমাদের সকলেরই জানা শ্রীলেখা টলিউডের একজন সাহসী অভিনেত্রী। অভিনেত্রীর পরিচিতি ঠিক ওই ভাবেই। বিভিন্ন রাজনৈতিক চর্চার বিষয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন তিনি। অভিনেত্রী বিভিন্ন সময়ে তাঁর সাহসী অবতারের বিভিন্ন ছবি বা ভিডিও পোস্ট করেন তিনি। এবার আবারও ঘটল এমন একটি ঘটনা। সোশ্যাল মিডিয়াতে অভিনেত্রীকে দেখতে পাওয়া গেল অন্য রুপে। অভিনেত্রীকে হঠাৎই তাঁর সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখা গেল সিঁথি ভর্তি সিঁদুর আর পায়ে আলতা পড়ে। তাই দেখেই সোশ্যাল মিডিয়া প্রশ্ন করছে যে, তবে কি অভিনেত্রী দ্বিতীয়বার বিয়ের সারলেন?

প্রসঙ্গত এর আগে অভিনেত্রী বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন ২০০৩ সালে শিলাদিত্য সান্যালের সাথে। কিন্তু বিয়ের কয়েক বছরের পরেই বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। তবে তাঁদের দুজনের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। অন্যদিকে অভিনেত্রী তার স্বামীর সাথে স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক না রাখলেও বন্ধুত্বের সম্পর্ক রেখেছেন। প্রাক্তন স্বামীর সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্ক থাকলেও তাঁদের মধ্যে যেহেতু কোন বৈবাহিক সম্পর্ক নেই তাই সেরকম কোনো রীতি পালন করতে দেখে অবাক হওয়ায় স্বাভাবিক নেট পাড়ার। অভিনেত্রীর ছবি দেখেই জল্পনার সূত্রপাত।

এদিন অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা ছবিতে দেখতে পাওয়া গেল অভিনেত্রীর পরনে রয়েছে একটি সাদা টিশার্ট। তবে মুখের দিকে তাকালে একেবারে জ্বলজ্বল করছে অভিনেত্রীর সিঁথি ভর্তি সিঁদুর। আবার আরেকটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে টুকটুকি লাল আলতাতে রাঙিয়ে নিয়েছে নিজের পা। এই ছবি দেখে জল্পনা সূত্রপাত হলেও অভিনেত্রী ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, “ছবি দেখে ভাববেন না আবার দ্বিতীয় বিয়ে করলাম”।

এছাড়াও অভিনেত্রী আরও লিখেছেন, “চ্যানেলে দেখানোর মতো বড় জাঁকজমকওয়ালা পুজো হয় না আমার বাড়িতে। আমার লক্ষ্মীমন্ত মা করতেন পুজো, সেই ধারাকে সম্মান জানিয়ে নিজের মতোন ছোট্ট পুজো করি বাড়িতে। আমার মা ছিলেন আমার লক্ষ্মী, তবে একটা শ্যুট করেছি যেটা আজ প্রকাশ্যে আসবে, জানাব কোথায় আর কখন”।

Back to top button