টলিউড

“ঝুকুন ঝুকুন পায়ের তলার তল ঠিক পেয়ে যাবেন, কারেক্ট আছে” – স্বস্তিকা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পা ছুঁয়ে প্রণাম করায় অভিনেত্রীকে “খামতি দিদিমণি” বলে কটাক্ষ করেছিলেন শ্রীলেখা! এর জবাব বেশ কড়া ভাষায় দিলেন স্বস্তিকা

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় এবং শ্রীলেখা মিত্র দুজনেই বাংলা অভিনয় জগতের বেশ জনপ্রিয় নাম। যদিও অভিনেত্রী শ্রীলেখাকে পর্দা এখন আর প্রায় দেখা যায় না বললেই চলে। তবে স্বস্তিকা এখনো পর্দায় চুটিয়ে কাজ করছেন। এমনকি নিজের কাজের জন্য বেশ প্রশংসিতও হচ্ছেন অভিনেত্রী। বড় পর্দায় এবং ওয়েব সিরিজে বেশ ভালই দাপট রয়েছে তাঁর। শুধু কাজের জগতের কথা বাদ দিলে নিজেদের চারিত্রিক গুণাবলীর জন্য দর্শকমহলে বেশ চর্চিত এই দুই অভিনেত্রী। সাহসী অবতারে এদের দুজনকেই আমরা দেখতে পেয়েছি বহুবার। তবে এবার শ্রীলেখা স্বস্তিকাকে কটাক্ষ করায় ট্রোল হতে হল শ্রীলেখাকেই।

কিছুদিন আগে শেষ হয়েছে শারদোৎসব। আমাদের সকলেরই জানা প্রত্যেক বছর দুর্গাপূজার কার্নিভাল পালিত হয়। আর এই বছর একটু বেশি উৎসাহের সাথে পালিত হয়েছে কারণ ইউনেস্কো থেকে হেরিটেজ সম্মান পাওয়ার পর উৎসবকে আরেকটু জমজমাট করা সেটা খুবই স্বাভাবিক। এই কার্নিভালে একটি বিশিষ্ট পূজা কমিটির ক্লাবের তরফ থেকে অভিনেত্রী স্বস্তিকা উপস্থিত ছিলেন। সেখানে গিয়ে যথারীতি অভিনেত্রীর সাক্ষাৎ হয় বর্তমান রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে। খুব স্বাভাবিকভাবেই হিন্দু ধর্মের সংস্কৃতির কথা মাথায় রেখে অভিনেত্রী মুখ্যমন্ত্রীর পা ছুঁয়ে প্রণাম করেন। আর বিজয়ার মিষ্টি স্বরূপ অভিনেত্রীর হাতে চকলেট গুঁজে দেন মুখ্যমন্ত্রী। আর সেই ছবি শেয়ার করে অভিনেত্রী মুখ্যমন্ত্রীর ব্যবহারের প্রশংসাই করেছিলেন। বিষয়টি খুবই সৌজন্যপূর্ণ হওয়ার পরেও সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে রীতিমত স্বস্তিকাকে কটাক্ষ করা হয়। এমনকি স্বস্তিকার নিজের ইন্ডাস্ট্রির একজন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র পর্যন্ত কটাক্ষ করতে ছাড়েননি।

সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে শুরু হয় স্বস্তিকাকে আক্রমণ করা। কেউ তাঁকে “চটি চাটা” আবার কেউ তাঁকে “মেরুদণ্ডহীন” বলেও কটাক্ষ করেন। তবে একদিকে আমরা সকলেই জানি অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের কিন্তু বর্তমান শাসকদলের সঙ্গে রাজনৈতিক মতপার্থক্য রয়েছে। তারপরেও অভিনেত্রী যে সৌজন্যবোধ সেখানে পালন করেছেন সেটার প্রশংসা না করে সোশ্যাল মিডিয়ার অর্ধাংশ মানুষ শুধু দোষারোপ করছে অভিনেত্রীকে। এমনকি একজন আবার বাবা তুলেও কটাক্ষ করেছেন। যদিও সেই কটাক্ষেরও উচিত জবাব দিয়েছেন অভিনেত্রী। এমনকি তাঁর নিজের ইন্ডাস্ট্রির আরো একজন সাহসী অভিনেত্রী বাম মনোভাবাপন্ন শ্রীলেখা মিত্র অভিনেত্রী স্বস্তিকা কি কটাক্ষ করে লিখেছেন “খামতি দিদিমনি”। প্রত্যেক সাধারণ মানুষের কটাক্ষের উচিত জবাব অভিনেত্রী স্বস্তিকা দিয়েছিলেন। এবার নিজের সুপটো বাক্যে গুছিয়ে অভিনেত্রী স্বস্তিকাকে কড়া জবাব দিলেন “শ্রীমতি”।

অভিনেত্রী স্বস্তিকা শ্রীলেখার কটাক্ষের জবাবে লিখলেন, “আমার খামতি দিদিমণি, আপনি চোখে আঙুল দিয়ে আমায় দেখিয়ে দিলেন আমার খামতি কোথায়, আপনাদের মত হতে পারলাম না এইতো? ঝুকুন ঝুকুন পায়ের তলার তল ঠিক পেয়ে যাবেন। ক্যারেক্ট আছে”। তবে শ্রীলেখাকে যোগ্য জবাব যে শুধু অভিনেত্রী স্বস্তিকায় দিয়েছেন তেমনটা কিন্তু নয়। স্বস্তিকার অনুরাগীরাও শ্রীলেখাকে যথেষ্ট কথা শুনিয়েছেন। যেমন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের একজন অনুরাগী শ্রীলেখাকে কটাক্ষ করে লিখেছেন, “এটাকে সৌজন্য সাক্ষাৎ বলে, উনি কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর নিমন্ত্রিত নয়। একটা ক্লাবের হয়ে গিয়েছেন। আর যদি কোনও অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী থাকে সেখানে না দেখা করাটা অসামাজিকতা হয়। অবশ্য সৌজন্য বোধ মনে হয় না আপনি আদৌ জানেন”।

Back to top button