টলিউড

‘পেশেন্ট আইসিইউতে গেলে আর কমলা লেবু কিনে দিয়ে লাভ নেই’! রাজ‍্য পুলিসের মাদক বিরোধী প্রচারে সুপারস্টার রুদ্রনীলকে বসিয়ে দলে টানার চেষ্টাকে নাকচ করে সকৌতুক জবাব দিলেন অভিনেতা

কখনও কখনও ছবির কোন একটি ডায়লগ এমনই বিখ্যাত হয়ে যায় যে, সেই ডায়লগকে এডিট করে অন্যান্য শব্দ বসিয়ে আরো নানান ক্ষেত্রে সেটিকে ব্যবহার করা হয়। ঠিক যেমন ভিঞ্চিদা ছবিতে অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষের ডায়লগ ‘ধরতে পারবেন না’। এই একটি ডায়লগ নিয়ে প্রচুর মিম তৈরি হয়, তবে সম্প্রতি রুদ্রনীলের এই ডায়লগ ব্যবহার হলো রাজ্য পুলিশের প্রচারের ক্ষেত্রে ও, যা দেখে তাজ্জব হয়ে গিয়েছেন সকলে। বিজেপি নেতা রুদ্রনীলের ছবি দিয়ে ও তার বিখ্যাত ডায়লগটিকে নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের মাদক নিয়ে সচেতনতা মূলক প্রচার করা হয়েছে। যেখানে অভিনেতা রুদ্রনীলের ছবি দিয়ে উপরে লেখা হয়েছে,“বিভিন্ন জায়গায় মাদকচক্রের খপ্পরে পড়ে কখন যে আপনি নিজেই মাদকাসক্ত হয়ে পড়বেন: ধরতে পারবেন না!” এর সাথে আরও লেখা রয়েছে যে, “সংযত থাকুন এবং সংযত হোন। আসক্তি থেকে নিজেকে দূরে রাখুন এবং অন্যদের দূরে থাকতে সাহায্য করুন।”

এই প্রসঙ্গে অভিনেতা প্রতিক্রিয়া দিয়ে বলেছেন, “বিস্মিত হয়েছি, মজা পেয়েছি। পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ তাদের মাদক বিরোধী সচেতনতা মূলক বিজ্ঞাপনে আমার ছবি ব্যবহার করেছেন দেখে।(আমার পারমিশন কেউ নেন নি)। প্রথমত এই ছবিটি সৃজিৎ মুখার্জী পরিচালিত বহুল প্রচলিত ভিঞ্চিদা সিনেমার স্টিল ছবি। আমার মুখের জনপ্রিয় সংলাপ ‘ধরতে পারবেন না’ কে তারা নিয়েছেন। এতে মানুষকে আকর্ষণ করতে চেয়েছেন।”

এখানেই থেমে থাকেননি অভিনেতা, কটাক্ষ করে বলেছেন,“ কিন্তু এটা তো হবার কথা না। রাজ্য সরকারের বিজ্ঞাপনের পুরস্কার বা সম্মান পাওয়ার লিস্টে ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের আমন্ত্রণ লিস্টে মঞ্চে তো সাধারণত শাসক দলের হয়ে প্রচার করা শিল্পী বুদ্ধিজীবীরাই স্থান পান। তাহলে আমি কেন? রোজ‌ই তো এ রাজ্যে যা যা অন্যায় চুরি জোচ্ছুরি ঘটছে তা নিয়ে কোনো না কোন মিডিয়ায় কথা বলি!! তাহলে এটা কেন ঘটলো??”

এর উত্তর আবার নিজেই খুঁজে পেয়েছেন রুদ্রনীল, মজা করে অভিনেতা লিখেছেন সম্ভবত রাজ্য পুলিশের ব্যাক অফিসের কোনো কর্মী বা মিডিয়া এজেন্সি ভুল করে এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন। তবে যে এই কাজটি করেছে তার চাকরি কতদিন থাকবে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অভিনেতা! কারণ অভিনেতার কথা অনুযায়ী,“ রাজ্যের বিরোধী দলের মানুষজনকে পুলিশ দিয়ে হেনস্থা বা বিরক্ত করার নিদান দেওয়া আছে তা সবাই জানে।” এরপর অভিনেতা বলেছেন, যদি কেউ ভাবেন আমায় এসব করে শাসকদলের টানার রাস্তা তৈরি করবো। তাদের উদ্দেশ্যে আমার একটাই সংলাপ “পেসেন্ট আইসিইউতে চলে গেলে আর কমলা লেবু কিনে দিয়ে লাভ নেই”

Back to top button