বাংলা সিরিয়াল

কখন‌ও শোলাঙ্কি তো কখনো কনীনিকা খ্যাতি যেন বিড়ম্বনা হয়ে দাঁড়িয়েছে এদের জীবনে! এইবার সবকিছুর সপাটে উত্তর দিলেন কনীনিকা!

প্রতিটি মানুষই খ্যাতি পেতে চান, আর যখন কোন মানুষ খ্যাতির উচ্চ চূড়ায় পৌঁছে যান তখন তাকে নানান রকম কথা শুনতে হয়। প্রশংসার পাশাপাশি, সমালোচনার ট্রোলিং ও তার নিত্য সঙ্গী হয়ে ওঠে। এই কারণেই বলা হয় খ্যাতির বিড়ম্বনা ও কম নয়। আসলে একটি চরিত্রকে পর্দায় যেভাবে দেখতে অভ্যস্ত হয়ে যান দর্শকরা তার বাইরে কিছু দেখলে তারা সেটা মনে নিতে পারেন না তখনই শুরু হয়ে যায় সমালোচনা, ট্রোলিং। এই কিছুদিন আগে যেমন শোলাঙ্কির একটি ছবি ঘিরে সমালোচনা হয়েছিল, ঋতাভরী চক্রবর্তীর হট ছবি নিয়েও প্রায়‌ই সমালোচনা হয়। কিছু মানুষের বক্তব্য থাকে যে তারা যেভাবে পর্দায় নায়িকাদের দেখতে অভ্যস্ত সেভাবেই যেন তারা বাস্তবেও ছবি দেন! অফস্ক্রিনে নায়িকাদের বোল্ড অবতারে দেখলেই কুরুচিকর আক্রমণ শুরু হয়ে যায়।

সম্প্রতি জনপ্রিয় অভিনেত্রী কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি ছবি দিয়ে দর্শকদের আক্রমণের মুখোমুখি হলেন। আয় তবে সহচরী ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করা এই অভিনেত্রীকে নিজের মেয়ে ও তার মেয়ে বন্ধুদের সাথে সমুদ্রে সময় কাটাতে দেখা যাচ্ছিলো যেখানে সবাই সুইমিং কস্টিউম পরে ছিলেন। সেই ছবি শেয়ার করার কিছুক্ষণের মধ্যেই কনীনিকার কস্টিউম দেখে কুরুচিকর মন্তব্য শুরু হয়ে যায়। কেউ সরাসরি লিখেন তাকে এই পোশাকে মানতে পারছেন না তো কেউ আবার বডি শেমিং করতে শুরু করে দেন।

কিন্তু অত সহজে মুখ বুজে মেনে নেওয়ার মানুষ নন কনীনিকা‌ও। এই কুরুচিকর মানসিকতার জবাব তিনি পরিষ্কার দিয়েছেন। অভিনেত্রী লিখেছেন,“ কি হাসি পাচ্ছে কিছু অশিক্ষিত মানুষ দেখতে। যারা লুকিয়ে সবকিছু করে। নাইটি আর শায়া পড়ে সমুদ্রে নামে সভ্যতার মুখোশ পড়ে আমাদের মধ্যে ঘুরে বেড়ায়। এরাই হল তারা যারা কথা বলার সময় বুকের দিকে তাকিয়ে কথা বলে। সেম। সমুদ্র দেখল না দেখলে শুধু চেহারা। অশিক্ষিত বলা ভুল এরা হলো সেই খরগোশ যারা সবকিছু করে আর ভাবে কেউ দেখছে না।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গাঁটছড়া ধারাবাহিকের অভিনেত্রী শোলাঙ্কি রায় কিছুদিন আগে ব্লাউজ ছাড়া আটপৌরে ধরনের শাড়ি পড়ে ছবি দিয়েছিলেন, সেই ছবি দেখেও মানুষজন বলতে শুরু করেন যে তাকে এই পোশাকে তারা মানতে পারছেন না, অনেকেই বলেন যে লাইক কমেন্টের জন্য তিনি যেন এই রকমের ছবি না দেন। তবে এই ধরনের মন্তব্য নিয়ে অভিনেত্রী শোলাঙ্কি মুখ খোলেননি, মুখ খুললেন কনীনিকা। একটু লক্ষ করলেই দেখা যায় শোলাঙ্কি, ঋতাভরী, মিঠাই খ্যাত সৌমিতৃষা, কনীনিকা- আক্রমণগুলো একচেটিয়াভাবে নায়কদের তুলনায় নায়িকাদের নিয়ে হয় যা সমাজের নিম্ন কুরুচিকর মানসিকতার পরিচয় দেয়। ‌

Back to top button