টলিউড

পুরসভায় গিয়ে কোভিশিল্ডের প্রথম ডোজ নিলেন নুসরত-যশ!

বর্তমানে মানুষের মধ্যে এবং মিডিয়াতে সবথেকে চর্চিত নায়িকা হলেন নুসরাত জাহান। চলতি বছরে বেশ কয়েক মাস ধরে মিডিয়াতে সাংসদ অভিনেত্রীকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছে। তার নাম বার বার জড়িয়েছে টলিউড অভিনেতা যশ দাসগুপ্তের সঙ্গে।

সমালোচনা চলেছে অভিনেত্রীর ছেলের পরিচয় নিয়ে। চলতি বছরের অগাস্ট মাসে পার্ক স্ট্রীটের এক বেসরকারি হাসপাতালে জন্ম নিয়েছে অভিনেত্রীর ছেলে। ছেলেকে নিয়ে জন্মাষ্টমীর দিন বন্ধু যশ দাসগুপ্তের সঙ্গে বাড়ি ফিরেছেন নুসরাত।

ছেলেকে নিয়ে বাড়ি ফেরার পরও সমালোচনার ঝড় থামেনি, বরং বেড়েছে। শনিবার সকালে নুসরাত জাহান বন্ধু যশ দাসগুপ্তের সাথে কলকাতা পুরসভার দফতরে গিয়েছিলেন ছেলে ঈশানের বার্থ সার্টিফিকেট আনতে। এদিন পুরসভায় পুর আধিকারিকদের কাছ থেকে জানতে চান যে তিনি তার ছেলের পরিচয় নিজের নামেই রাখতে চান তার জন্য কি কি করতে হবে।

কারণ অভিনেত্রী নুসরাত জাহান সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তার ছেলেকে তিনি নিজের পরিচয়ে বড় করবেন। এক্ষেত্রেও তাকে অনেক ধরনের মন্তব্যের মুখোমুখি হতে হয়েছে। গোটা নেটবাসী অনেক আগেই তকমা লাগিয়ে দিয়েছে যে ঈশান অভিনেতা যশ দাসগুপ্তের সন্তান। তবে সে বিষয়ে অভিনেত্রী অনেক আগেই পরিষ্কার ভাবে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি শুধুমাত্র নিজের পরিচয়েই বড় করতে চান।

এদিন নুসরাত জাহান এবং যশ দাসগুপ্ত কলকাতা পুরসভার দফতরে গিয়ে ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন। যশ দাসগুপ্ত পুরসভার আধিকারিকদের কাছ থেকে জানতে চান তার বিদেশ সফর রয়েছে তাই ৮৪ দিনের আগে তিনি কোভিশিল্ডের দ্বিত্বীয় ডোজ নিতে চান তার জন্য কি কি করতে হবে তাকে।

এরপর পুর আধিকারিকরা জানান প্রয়োজনীয় সমস্থ নথিপত্র সঠিক সময়ে জমা করে দেন তাহলে ৮৪ দিনের আগেই ভ্যাকসিন নিতে পাড়বেন। শনিবার সকালে পুরসভায় গিয়ে আবারও মিডিয়ার আলোয় উঠে এসেছেন এই দুই অভিনেতা অভিনেত্রী।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Nusrat (@nusratchirps)

Back to top button