‘মহামারীর জন্য ছেলের অন্নপ্রাশন জন্মদিন কিছুই পালন করা হয়নি’, প্রকাশ্যে মুখ খুললেন কোয়েল মল্লিক

গতবছর করোনা মরসুমে টলিউডের প্রথম সারির নায়িকা কোয়েল মল্লিকের কোল আলো করে তাঁর পুত্র সন্তান কবীরের জন্ম হয়। দিনটা ছিল ২০২০, ৫ মে। ছেলের জন্মের পর কোয়েল ও তাঁর স্বামী নিশপাল সিং তাঁদের অনুরাগীদের সঙ্গে এই খুশির খবর ভাগ করে নেন।

তবে এই দম্পতি চাননি তাঁদের ছেলে এত তাড়াতাড়ি লাইমলাইটের আওতায় চলে আসুক। তাই জন্মের পর কবীরের ছবি খুব একটা জনসমক্ষে আনেননি অভিনেত্রী ও তাঁর পরিবার। অভিনেত্রী বরাবরই চেয়েছেন সেলিব্রিটি হিসেবে নয়, কবীরকে আর পাঁচটা সাধারণ বাচ্চার মতই মানুষ করবেন।

তবে গতবছর পুজোর সময়ে প্রথম ছেলের ছবি প্রকাশ্যে এনেছিলেন কোয়েল ও নিশপাল, তাও কবীরের জন্মের পাঁচমাস পর। সেদিন তাঁর নামকরণও করা হয়।

তবে কবীরের জন্মের দুমাস পরেই কোয়েল ও তাঁর পরিবারের সকলেই করোনা আক্রান্ত হন। তবে ছাড় পেয়েছিল কবীর, এই মারন ভাইরাসের হাত থেকে। তাই এই একরত্তিকে ছেড়ে অভিনেত্রী আলাদা ছিলেন। তবে করোনা থেকে মুক্তি পেয়ে ছেলের কাছে ফিরে ভীষণ আনন্দিত হয়েছিলেন অভিনেত্রী।

তাই ছেলেকে নিয়ে সেইরকম আউটিংযেও যাওয়া হয়নি এই সেলিব্রিটি দম্পতির। কারণ সেই সময়ে বাংলায় ছিল ভরা লকডাউন, তাই বাড়িটাকেই তাঁরা তখন আউটিং ভেবে নিয়েছিলেন করোনা থেকে রক্ষা পেতে।

কয়েকদিন আগেই একবছর পূর্ন হল কোয়েল-নিশপালের একমাত্র সন্তান কবীর। চেহারায় ও মনে কবীর খানিকটা বড় হয়েছে। কিন্তু তাতে কি, তাঁর জন্মদিনের সময়েই যে করোনা আবার দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ে উদিত হয়েছে।

বর্তমানে রাজ্যজুড়ে চলছে আংশিক লকডাউন। বন্ধ হয়েছে লোকাল ট্রেন অনির্দিষ্টকালের জন্যে, পাশাপাশি বন্ধ হয়েছে সব মানুষ জমায়েতি জায়গাগুলি। আর এর মাঝেই কবীরের জন্মদিন পরে যাওয়ায় অগত্যা সেলিব্রেশন হলনা তাঁর জন্মদিন। শুধু জন্মদিনই নয়, এই মারন ভাইরাসের কোপে এই খুদে সেলিব্রিটির অন্নপ্রাশনের অনুষ্ঠানও পালন করতে পারেননি অভিনেত্রী ও রানে পরিবার।

কবীরের জন্ম থেকে শুরু করে তাঁর অন্নপ্রাশন, জন্মদিন সবকিছুই এই দুষ্টু ভাইরাসের মধ্যে দিয়েই যাচ্ছে। তবে কবীরের জন্মদিনের দিন একরত্তিরের মিষ্টি ছবি দিয়ে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হয়েছিল অভিনেত্রীর ফ্যান পেজ থেকে।

ছেলের এই বিশেষ মুহুর্তের সেলিব্রেশন নিয়ে অভিনেত্রী জানালেন, “আমি মনে করি এই আনন্দগুলির থেকে অনেক বেশি প্রয়োজন এই কঠিন পরিস্থিতিতে নিজেদের সামলে রাখা এবং মারন ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করা।”

এই একবছরে অভিনেত্রীকে অনেক কঠিন লড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে, কিন্তু তবুও অভিনেত্রী ভেঙে পড়েননি, সবসময় পজিটিভ চিন্তাভাবনা করেছেন। তিনিও নতুন মা হয়েছেন পাশাপাশি অনেকেই নতুন মা হয়েছেন, তাই তিনি পরামর্শ দিয়েছেন এই সময় নতুন মায়েরা সাবধানে থাকুন, মানসিকভাবে শক্ত থাকুন।

অভিনেত্রী এখন খবর শোনা বন্ধ করে গান শুনছেন, ভজন শুনছেন যা তাঁকে মানসিকভাবে শক্ত রাখছে, পাশাপাশি এইসমযে তিনি তাঁর পুত্রের সঙ্গেও অনেকটা সময় কাটানোর সুযোগ পাচ্ছেন, তাই এই সুযোগের সৎব্যবহার করছেন নায়িকা।