টলিউড

আবারো প্রসেনজিৎ দেখিয়ে দিলো টলিউডের রাজা তিনিই! বছরের শুরুতেই বাংলা ছবির জয়জয়কার, মাত্র কয়েকদিনেই বক্সঅফিসে দারুন ব্যবসা করলো ‘কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন’! মাত্র ৩ দিনেই ১ কোটি ছাড়িয়ে গেলো

করোনা পরিস্থিতির কারণে বক্সঅফিসে গত দু’বছরে বিপুল ক্ষতি হয়েছে। একাধিক সিনেমা মুক্তির জন্য আটকে ছিল আবার অনেক সময় পরিস্থিতি জটিল থাকার কারণে সাফল্য পায়নি ছবিগুলি। সেরকমই একটি ছবি হল টলিউডের ‘কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন’। সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত এই ছবিটি মুক্তির জন্য গত ২ বছর ধরে অপেক্ষা করেছিল দর্শকেরা। অবশেষে চৌঠা ফেব্রুয়ারি মুক্তি পেয়েছে কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন। একই সঙ্গে ওই দিন মুক্তি পেয়েছে বেশ কয়েকটি ছবি তাই প্রতিযোগিতা ছিল। গত দুই বছর ধরে বারবার মুক্তির ডেট সামনে এসেছে আবার কোভিড পরিস্থিতির কারণে পিছিয়ে গিয়েছে।

তবে অবশেষে সমস্ত বাধা বিপত্তি কাটিয়ে চৌঠা ফেব্রুয়ারি মুক্তি পেয়েছে কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন। রমরমিয়ে চলছে বহুল প্রতীক্ষিত এই সিনেমা। মুক্তির পর প্রথম তিন দিন ভালোই উপার্জন করেছে বক্সঅফিসে। মহেন্দ্র সোনি জানিয়েছেন একই দিনে মোট এই সিনেমায় ব্যাবসা করেছে এক কোটি টাকা। সৃজিত মুখোপাধ্যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন বছরের প্রথম ব্লকবাস্টার বাংলা ছবি। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের গল্প অবলম্বনে জঙ্গলের মধ্যে এক হোটেল অবলম্বণে তৈরি এই গল্প কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন। তবে গল্পের সঙ্গে হুবহু মিল খুঁজে পাওয়া যাবে না মিল খুঁজতে গেলে খানিক বেগ পেতে হবে দর্শকদের। কারণ বেশ কিছু অংশে ছবির স্বার্থের কারণেই পাল্টে ফেলা হয়েছে। আফ্রিকা সফরে কাকাবাবু গল্প বেশ নজর কেড়েছে। সেখানেরই এক হোটেল কে ঘিরে রহস্য। কাকাবাবুর চিরকালের সঙ্গী সন্তু ছুটি কাটাতে যাওয়ার পর তার মনের বাসনা পূরণ হয়েছে। আবারো এক রহস্যের সন্ধান, হোটেল থেকে উধাও পর্যটকেরা গেলেন কোথায়, এখান থেকেই শুরু হয়ে যায় কাকাবাবুর অভিযান।

এই ছবিতে টানটান উত্তেজনা রয়েছে, রহস্য রয়েছে, মজাদার গল্প রয়েছে, যা নেই তা হলো অ্যাকশন। ছবিতে অ্যাকশন এর পরিমাণ খুবই কম। ঠিক সেই কারণেই কাকাবাবু প্রেমীদের কাছে এই ছবি কিছুটা ম্যাজমেজে লাগতে পারে। পাশাপাশি ভিএফএক্স-এর কাজ আরও ভালো হলেই ছবিটি দারুণ জমে উঠত বলে দাবি দর্শকদের।

এর আগেও ইয়েতি অভিযান, মিশর রহস্যের মত রহস্যঘেরা ছবি উপহার দিয়েছেন পরিচালক। তাই জন্যই কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন নিয়ে উত্তেজনা ছিল দর্শকদের। ছবিতে কাকাবাবুর চরিত্রে বরাবরের মতো দেখা গেছে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় কে এবং সন্তুর চরিত্রে রয়েছে আরিয়ান ভৌমিক। অন্যদিকে ছবির গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন অনির্বাণ চক্রবর্তী। এমনিতেই সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ছবি মানেই টানটান উত্তেজনা এবং দারুন গল্প তাই দর্শকরা প্রতীক্ষা ছিলেন এই ছবি মুক্তির।

Back to top button