টলিউড

জয়যাত্রা অব্যাহত, বিতর্ককে তুড়ি মেরে ১০ দিনে কয়েক কোটি ব্যবসা করল দেব মিঠুনের ‘প্রজাপতি’

দেব(Dev) চেষ্টা করেছে। কিন্তু মিঠুনের(Mithun Chakraborty) জন্যই প্রজাপতি ‘ফ্লপ’ হল! কার্যত এমন কথাই শোনা গিয়েছিল তৃণমূলের মুখপাত্র কুনাল ঘোষের(Kunal Ghosh) মুখে। কিন্তু তার ভাবনা যে কতটা ভুল তা প্রমাণ করে দিল প্রজাপতি। নিজের পাখা মেলে ‘প্রজাপতি'(Projapoti) এখনো উড়ছে আকাশে। মুক্তির প্রথম দিনেই একেবারে ছক্কা হাঁকিয়েছে এই ছবি। একদিনে এক কোটি টাকার ব্যবসা করে কার্যত সবার মুখ বন্ধ করে দিয়েছে দেব-মিঠুনের জুটি। প্রজাপতি যে সবদিক থেকে হিট তা এবার প্রমাণ করল নতুন পরিসংখ্যান। মাত্র ১০ দিনে কত কোটি টাকা আয় করেছে এই ছবি জানেন?

জানা গিয়েছে দ্বিতীয় সপ্তাহেও নিজের জয়যাত্রা অব্যাহত রেখেছে প্রজাপতি। আরো বেশি করে ডানা মেলেছে সে। প্রথম ১০ দিনে দেশের বক্স অফিসে সব মিলিয়ে চার কোটি টাকার ব্যবসা করে নিয়েছে এই ছবি। যা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। ১লা জানুয়ারি থেকে এই ছবির আয় এক কোটি টাকার বেশি। নিঃসন্দেহে গুড়িয়ে দিয়েছে বাংলা ছবির সমস্ত পুরনো রেকর্ড।

পরিচালক অভিজিৎ সেনের(Avijit Sen) এই ছবিতে বাবা এবং ছেলের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে মিঠুন চক্রবর্তী এবং দেবকে। ক্রিসমাসে ‘প্রজাপতি’র পাশাপাশি মুক্তি পেয়েছে ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত অভিনীত ‘হত্যাপুরী’ এবং শিবপ্রসাদ এবং নন্দিতা রায়ের ‘হামি ২’। দুটি ছবিকেই মাত দিয়েছে বক্স অফিসে। টাকার অঙ্কের নিরিখে এই তিন ছবির মধ্যে সবথেকে বেশি ব্যবসা করেছে প্রজাপতি। শহরের একাধিক হলে এখনো ঝুলছে হাউসফুল বোর্ড(Housefull)। দেব পেরেছেন বাঙালিকে আবার হলমুখী করতে বাংলা ছবি দেখতে।

মুক্তির প্রথম সপ্তাহে ২ কোটি ১৭ লক্ষ টাকা ব্যবসা করেছে প্রজাপতি। দ্বিতীয় সপ্তাহেও এই ধারা বজায় রয়েছে। বরং তিন দিনেই প্রায় দু কোটি টাকার কামাল করল এই ছবি। প্রথম সপ্তাহে এই ছবির শো সংখ্যা ছিল ১৮৯। বোঝাই যাচ্ছে প্রজাপতিকে নিয়ে দর্শকদের উত্তেজনা এখনো ঠিক কতখানি।

প্রসঙ্গত তৃণমূলের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ কয়েক দিন আগেই বিস্ফোরক এক মন্তব্য করে বসেছিলেন সাংবাদিক বৈঠকে। তিনি বিজেপি নেতা মিথুনকে কটাক্ষ করে বসেন মিঠুন চক্রবর্তীকে নিয়ে সিনেমা বানানোই ফ্লপ হয়েছে প্রজাপতি। এই মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন দেব। জানিয়েছেন সিনেমাটা তার বিষয়ে এই বিতর্কে তার দল যেন কোনরকম বিতর্ক না করে। পাশাপাশি এও জানিয়ে দিয়েছেন আবার কোন স্ক্রিপ্ট অনুযায়ী মিঠুনদাকে ছবিতে প্রয়োজন পড়লে তিনি আবার তার ছবিতে নেবেন। হ্যাঁ বা না বলাটা তার ইচ্ছার ওপর নির্ভরশীল।

মিঠুন এবং দেব ছাড়াও এই ছবিতে দেখা পাওয়া গিয়েছে মমতা শঙ্কর, কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, অম্বরিশ ভট্টাচার্য ,শ্বেতা ভট্টাচার্য ,কৌশানী মুখোপাধ্যায়। অভিজিৎ সেন এবং দেব জুটি টনিকের পর আবার একবার প্রজাপতির সাফল্য দেখিয়ে দিল। তাই তিন নম্বর ছবির ঘোষনা ইতিমধ্যে সেরে ফেলেছেন দুজনে।

Back to top button