বলিউড

দশম বিবাহ বার্ষিকীতে, “পাওয়ার কাপল” সইফ – করিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে পুরনো ছবি পোস্ট করলেন সোহা

সাইফ আলী খান এবং কারিনা কাপুরের জুটি বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় দম্পতি। দুজনেই নিজেদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে প্রায়ই আলোচনায় থাকেন। আজ এই দম্পতি তাদের 10 তম বিবাহ বার্ষিকী উদযাপন করছেন। এ উপলক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাইফের নামে একটি সুন্দর বার্তা লিখেছেন কারিনা।

সাইফ আলি খান 1991 সালে অমৃতা সিংকে প্রথম বিয়ে করেছিলেন, তারপরে তারা দুজনেই দুই সন্তানের (সারা এবং ইব্রাহিম) বাবা-মা হন। যাইহোক, বিয়ের 13 বছর পর, 2004 সালে দুজনেই একে অপরের থেকে আলাদা হয়ে যান। তারপর আবার “পতৌদি প্যালেসে” কারিনা কাপুর এবং সাইফ আলী খানএর বিয়ের আসর বসে জাঁকজমকপূর্ণ ভাবেই। 16 অক্টোবর 2012 তারিখে গাঁটছড়া বাঁধেন তারা। তারপর দেখতে দেখতে কেটে গেল তাদের বিয়ের 10 বছর। দশম বিবাহ বার্ষিকীতে সাইফের জন্য একটি বিশেষ বার্তা লিখেছেন কারিনা।

কারিনা কাপুর, যিনি বলিউডের বেবো নামেই বহুল পরিচিত , তার 10 তম বিবাহ বার্ষিকীতে ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি শেয়ার করেছেন তিনি। এই ছবিতে তার সঙ্গে রয়েছেন সাইফ আলি খানও। এই ছবিটি শেয়ার করে কারিনা কাপুর ক্যাপশনে লিখেছেন, “আমি এবং আপনি.. আপনি এবং আমি.. আমরা অনন্তকাল পর্যন্ত যাব। শুভ 10 বছর সুদর্শন মানুষ।” তার সাথে তার “লাল হৃদয়”ও জুড়েছেন বেবো অর্থাৎ হার্টের ইমোজিও শেয়ার করেছেন কারিনা।

এক্কেবারে ফিল্মি দুজনের প্রেমের গল্প..
উল্লেখযোগ্যভাবে, সাইফ আলি খান এবং কারিনা কাপুর দুজনেই ফিল্ম জগতের সুপরিচিত তারকা। একই সঙ্গে এই দুজনের প্রেমের গল্পও কোনো ছবির গল্পের চেয়ে কম নয়। আজও, তারা দুজনেই সুখী দাম্পত্য জীবন যাপন করছেন এবং দুজনেই দুই সন্তানের (তৈমুর এবং জেহ) বাবা-মা।

যদিও সাইফকে বিয়ে করতে কারিনাকে অনেক সমস্যায় পড়তে হয়েছিল। আসলে, কারিনার বাবা-মা রণধীর কাপুর এবং ববিতা চাননি তাদের মেয়ে বিবাহিত পুরুষকে বিয়ে করুক। একইসঙ্গে কারিনা তার বাবা-মাকে হুমকিও দিয়েছিলেন যে, এই বিয়েতে দুজনেই রাজি না হলে বাড়ি থেকে পালিয়ে যাবেন। এই দুই তারকার বিয়ের এক ছবি সোশ্যাল মাধ্যমে শেয়ার করেছেন করিনার মিষ্টি ননদিনী সোহা। সেই ছবিতে শাশুড়ি শর্মিলা ঠাকুর কে ঘিরে দাঁড়িয়েছিলেন নবদম্পতি সহ সোহা, সারা, ইব্রাহিম আলী খান । এই ছবি দেখে মুগ্ধ তাদের অনুরাগীরাও।

Back to top button