বলিউড

সারেগামাপার মঞ্চে দুর্দান্ত গান গেয়ে ‘ডেডলি দেবদাস’ উপাধি পেলেন দীপায়ন, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

হিন্দি সারেগামাপার মঞ্চে টপ ১৬ প্রতিযোগিদের মধ্যে ইতিমধ্যেই গানের লড়াই শুরু হয়ে গিয়েছে। একে অপরকে নিজেদের গায়েকি দিয়ে টেক্কা দিচ্ছেন সকলেই। প্রত্যেকটি প্রতিযোগী নিজের সেরাটা দিচ্ছেন এই মঞ্চে। এবছর টপ ১৬ প্রতিযোগীদের বেছে নিতে বেশ সমস্যায় পড়তে হয়েছে বিচারকদের। কারণ বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রতিযোগিরা এসেছিলেন অংশগ্রহণ করতে। তাদের মধ্যে সেরা কয়েকজনকে বেছে নিয়েছেন বিচারকমণ্ডলী। এবছর মূল বিচারক আসনে রয়েছেন বিশল দাদলানি, শঙ্কর মহাদেভান, হিমেশ রেশমিয়া।

জি টিভির পর্দায় ইতিমধ্যেই এই প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে গিয়েছে। এবছর হিন্দি সারেগামাপায় ভিড় জমিয়েছেন একরাশ বাঙালি প্রতিযোগী। তাদের মধ্যে রয়েছেন স্নিগ্ধজিৎ অনন্যা বিদীপ্তা কিঞ্জল, নীলাঞ্জনা, দীপায়ন। যারা বর্তমানে এই হিন্দি সারেগামাপার মঞ্চে রীতিমতো টেক্কা দিচ্ছেন একে অপরকে। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন দীপায়ন ব্যানার্জি। সম্প্রতি তার গান শুনে হিমেশ রেশমিয়া ‘ডেডলি দেবদাস’ নাম দিলেন দীপায়নকে।

সম্প্রতি একটি প্রমো দেখানো হয়েছে টেলিভিশনের পর্দায়, যা ইতিমধ্যেই ভাইরাল নেটদুনিয়ায়। ভাইরাল হওয়া প্রমোতে সারেগামাপার মঞ্চে গান গাইতে দেখা যাচ্ছে দীপায়নকে। ‘থোরিসি জো পিলি হ্যায়, চোরি তো নেহি কি হ্যায়’ এই গানটি শোনা গিয়েছে দীপায়নের কন্ঠে। গানের পাশাপাশি মাতাল হওয়ার অভিনয়ও করেছেন তিনি, যা গানটিকে এক অন্য মাত্রায় পৌঁছে দিয়েছে। গান শেষে সকল বিচারকদের স্টেজের উপর উঠে যেতেও দেখা গিয়েছে। তার গানে মুগ্ধ হয়ে হিমেশ রেশমিয়া ‘ডেডলি দেবদাস’ নাম দিয়েছেন তাকে।

এই সারেগামাপার মঞ্চে দীপায়ন নিজের অপূর্ণ প্রেমের কথাও জানিয়েছেন। এই মুহূর্তে তার জীবনে প্রথম এবং শেষ ভালোবাসা হল গান। তার জীবনের এখন মূল লক্ষ্য একজন ভালো গায়ক হয়ে ওঠা। এদিন তার গান শুনে তার প্রেমিকা খোঁজার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন হিমেশ রেশমিয়া। দীপায়ন ইতিমধ্যেই নিজের গায়েকি দিয়ে সকলকে বুঝিয়ে দিচ্ছেন তিনি লম্বা দৌড়ের ঘোড়া। এত সহজে তাকে টলানো যাবে না। শেষ পর্যন্ত তিনি সারেগামাপার মঞ্চে টিকে থাকতে পারেন কিনা সেটাই লক্ষণীয়।

Back to top button