বলিউড

শাহরুখ খানের সঙ্গে কোনো রকম কোনো যোগাযোগ রাখতে চাইছেন না অজয় দেবগন, কিং খানের এই বিপদের দিনে তার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন সুপারস্টার অজয় দেবগন

কথায় আছে নিজের বিপদেই আসল মানুষ চেনা যায়, সঠিক মানুষটাকে বিপদের সময় তেই আমরা চিনতে পারি। আর বিপদের সময় গুলিতে এমন অনেক সময় দেখা যায় যে নিজের কাছের মানুষগুলোর পাশে থাকেনা। এবারে সেরকমই এক ঘটনার সম্মুখীন হতে হলো বলিউডের কিং খানকে।

পরিচালক কমলার খানকে তো আমরা সকলেই চিনি। বিতর্কিত বক্তব্য রাখার জন্য তিনি বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে বেশ জনপ্রিয়। সম্প্রতি আরও একটি বিতর্কিত বক্তব্য রাখার কারণে তিনি খবরের শিরোনামে উঠে এসেছেন।

আমরা প্রত্যেকেই জানি এই মুহূর্তে বলিউডের কিং খান পুত্র আরিয়ান খান মাদক দ্রব্য সেবনের কারণে মুম্বাই পুলিশের জেল হেফাজতে রয়েছে। গত ৩রা অক্টোবর একটি পার্টি থেকে আরিয়ান সহ আরো ৭ জন কে গ্রেফতার করা হয়। তারপর থেকে শ্রী ঘরেই রয়েছেন আরিয়ান। এখনো পর্যন্ত তার জামিনের আবেদন খারিজ হয়নি।

আর এই সময়ে শাহরুখ খানের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি বিভিন্ন অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। শাহরুখ খানের সঙ্গে বলিউডের অভিনেতা অভিনেত্রীর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে যাদের মধ্যে পুজা বেদি, হৃত্বিক রোশন, সালমান খান আরও অনেকেই রয়েছেন। তারা প্রত্যেকেই শাহরুখ খানের এই বিপদের দিনে শাহরুখ খানের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।

এই মুহূর্তে শাহরুখ খানের স্ত্রী গৌরি খান পুত্রের জামিনের জন্য দিনরাত এক করে ভগবানকে ডেকো চলেছেন, এমনকি মাঝেমধ্যে উপোস রাখছেন ছেলের নামে। যাতে ছেলে তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসে। এইসব এর মাঝেও দেখা যায়নি ইন্ডাস্ট্রিতে শাহরুখ খানের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বন্ধু কাজল এবং অজয় দেবগন কে। ইন্ডাস্ট্রির সূত্রেই কাজল এবং অজয় দেবগনের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে শাহরুখ খানের, এমনকি দুই পরিবারের মধ্যে পারিবারিক সম্পর্কই ছিল। শাহরুখ খান এবং অজয় দেবগন কে আমরা বহু বিজ্ঞাপনে একসঙ্গে কাজ করতে দেখেছি। সম্প্রতি আরও একটি বিজ্ঞাপনের জন্য কাজ করছিলেন দুজন অভিনেতা।

তবে জানা গিয়েছে সেই বিজ্ঞাপন এর কাজ থেকে সরে এসেছেন অজয় দেবগন।পরিচালক কোমল আর খান দাবি করেছেন শাহরুখ খানের এই বিপদের দিনে অজয় দেবগন তার পাশ থেকে সরে এসেছেন, শাহরুখ খানের দিক থেকে মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছেন তিনি। এমনকি শাহরুখ খানের সঙ্গে কোনো রকম বিজ্ঞাপনে কাজ করার কাজ করতে চাইছেন না তিনি। যার ফলে চুক্তি থেকে নিজের নাম তুলে নিয়েছেন। কমল খানের এই বক্তব্য শুনে অনেকেই অজয় দেবগন সম্পর্কে বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করেছেন, আবার অনেকেই কমল খানের এই সমস্ত বক্তব্যকে গাঁজাখুরি বলে উড়িয়ে দিয়েছেন।

Back to top button