বাংলা সিরিয়াল

জন্মদিনের বিশেষ দিনে ছোটপর্দার মা সারদা সন্দীপ্তা সেনের উষ্ণতায় উষ্ণ হয়ে উঠলো সুইমিং পুলের জল!

আজ শুক্রবার ২৭ শে আগস্ট অভিনেত্রী সন্দীপ্তা সেনের জন্মদিন। নিজের বিশেষ দিন এই অভিনেত্রী নেমে পড়লেন সুইমিংপুলে। ভেজা শরীরে জল পরীর মত একটি ছবি শেয়ার করে নিলেন ইনস্টাগ্রামে। এই দিন সকালেই দেখা গিয়েছিল অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিজের মনের কথা উজার করে বলতে। এই বিশেষ দিনে নীল জলে গা ভাসালেন সুন্দরী অভিনেত্রী সন্দীপ্তা সেন। বর্তমানে অভিনেত্রী সন্দীপ্তা সেনকে দেখা যাচ্ছে ছোটপর্দার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘করুণাময়ী রানী রাসমণি’ তে পরিণত সারদা মায়ের চরিত্রে।

পর্দায় তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য যতটা সাদাসিধে সহজ-সরল বাস্তবে ততটাই উল্টো অভিনেত্রী। বাস্তবে অভিনেত্রী প্রানোজ্জল এবং গ্ল্যামারাস। এক কথায় যাকে বলা যায় রূপে লক্ষ্মী গুণে সরস্বতী। ছোটবেলা থেকে পড়াশোনার ওপরেও যথেষ্ট দখল রয়েছে তার। প্রথমে দুর্গা এবং পরে ‘টাপুর টুপুর’ ধারাবাহিকের মধ্যে দিয়ে অধিক জনপ্রিয়তা পেয়েছেন অভিনেত্রী সন্দীপ্তা সেন। প্রথম থেকেই অভিনেত্রীর অভিনয়গুণে মুগ্ধ ছিলেন দর্শকেরা।

ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করা তিনটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রীর পরনে রয়েছে কালো রংয়ের সুইমিং কস্টিউম। মুখে হালকা মেকআপ, ঠোঁটে লিপস্টিক, চুলটা বাধা। সন্দীপ্তা সেনের এমন উষ্ণ ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। নীল জলে মিশে গিয়ে তাকে একেবারে জলপরী লাগছে। আজ শুক্রবার ৩৫ বছর বয়সে পদার্পণ করলেন অভিনেত্রী সন্দীপ্তা সেন।

ছোটপর্দা থেকে শুরু করে বড় পর্দা থেকে ওয়েব সিরিজ সমস্ত জায়গাতেই চুটিয়ে কাজ করেছেন অভিনেত্রী। প্রথমবার বড় পর্দায় পা রেখেছেন মৈনাক ভৌমিকের ছবি আস্তে লেডিস এর হাত ধরে। সেখানে অভিনেত্রীকে দেখা গিয়েছিল মেঘার চরিত্রে। অভিনেতা রাহুলের সঙ্গে অভিনেত্রীর নাম বারবার জড়িয়েছে। তবে দুই পক্ষ থেকে দাবি করা হয় যে তাদের মধ্যে শুধুমাত্র বন্ধুত্বের সম্পর্ক রয়েছে, এর থেকে বেশি কিছু নয়।

জন্মদিন উপলক্ষে অভিনেতা রাহুল বন্দোপাধ্যায় কে দেখা গেছে ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুকে দুটো মাধ্যমে আলাদা আলাদা ছবি পোস্ট করতে। ইনস্টাগ্রামে আনুমানিক রাত ১ টা নাগাদ অভিনেত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। অভিনেতা সমস্ত মন খারাপের ঠিকানা অভিনেত্রী সন্দীপ্তা সেন এমনটাই ক্যাপশনে যোগ করতে দেখা গেছে অভিনেতা রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by SANDIPTA SEN (@sandiptasen)

Back to top button