বাংলা সিরিয়াল

‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে না ভজনের চরিত্রের অভিনেতা চন্দন সেন কে! আবার কবে ধারাবাহিকে ফিরছেন অভিনেতা প্রশ্ন উঠেছে ভক্তদের মনে

ইতিমধ্যে খড়কুটো ধারাবাহিকে এসেছে নানা রকম টুইস্ট সমস্ত রকম ঝড় ঝাপটা পেরিয়ে অবশেষে বাবিন এবং গুনগুনের চার হাত এক হয়েছে। এছাড়াও ধারাবাহিকে জেঠাই এবং জেঠিমার বিবাহ বার্ষিকী উদযাপন হচ্ছে। এই সমস্ত ঘটনার মধ্যে একজন মিসিং। তিনি হলেন ধারাবাহিকে সকলের প্রিয় ভজন অর্থাৎ মেজকা। তিনি না থাকলে যেন কেমন ফাঁকা ফাঁকা লাগে ধারাবাহিকটি।

খড়কুটো এমন একটি ধারাবাহিক যে ধারাবাহিকে দেখানো হয় সকলে একসঙ্গে মিলেমিশে একসাথে থাকার গল্প, একে অপরের পাশে থাকার গল্প, কিভাবে সকলের মন জয় করে নিতে হয় সেই গল্প, কি করে ভালোবেসে সকলকে একজোট করে রাখতে হয় তার গল্প। মোটকথা একটি যৌথ পরিবারের মিলেমিশে থাকার গল্প ফুটিয়ে তোলা হয় খড়কুটো ধারাবাহিকের মাধ্যমে।

তবে এবারে দর্শকেরা তাদের প্রিয় মেজকা অর্থাৎ অভিনেতা চন্দন সেন কে ধারাবাহিকের মিস করতে শুরু করেছেন। শুধুমাত্র ধারাবাহিক নয়, মঞ্চ নাটক, সিনেমা, ওয়েব সিরিজ সমস্ত জায়গাতেই ক্যান্সারজয়ী এই অভিনেতা তার অভিনয়ের মাধ্যমে সকলের মন জয় করেছেন।

দক্ষ অভিনেতা চন্দন সেন, অভিনয় তার রক্তে। জাত শিল্পী তিনি। এতদিন যাবৎ খড়কুটো ধারাবাহিকে তাকে দেখতে না পেয়ে দর্শকের মনে অনেক প্রশ্ন জমা হয়ে গেছে এক সাক্ষাৎকারে এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন অভিনেতা নিজে।

সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে অভিনেতা জানান তিনি ভালো আছেন। শুধুমাত্র ব্যোমকেশ সিরিজের জন্য অভিনয় করতে গিয়েছিলেন উত্তরবঙ্গে। সৌমিক হালদার পরিচালিত ব্যোমকেশের ‘চোরাবালি’ গল্প নিয়ে ওয়েব সিরিজ তৈরি হচ্ছে সেই ওয়েব সিরিজেই একটি পাঠ করতে উত্তরবঙ্গে পাড়ি দিয়েছিলেন তিনি।

ওয়েব সিরিজ টিতে অনির্বাণ ভট্টাচার্য, ঋদ্ধিমা ঘোষ, অর্জুন চক্রবর্তী, সুপ্রভাত রায় কে অভিনয় করতে দেখা যাবে এবং একটি চরিত্রে চন্দন সেন কেও দেখা যাবে ওয়েবসিরিজটিতে। যার জন্য বেশ কিছুদিনের জন্য খড়কুটো ধারাবাহিক থেকে বিরতি নিয়েছিলেন অভিনেতা।

উত্তরবঙ্গে শুটিং কেমন হয়েছে জানতে চাওয়ায় তিনি বলেন “খুব ভালোভাবে শুটিং সম্পন্ন হয়েছে, ৩৯ বছরের অভিনয় জীবনে এই প্রথম উত্তরবঙ্গে জুলাই মাসে গিয়ে ঠিকঠাকভাবে শুটিং শেষ করতে পেরেছে তারা”। কারণ সাধারণত জুলাই মাসে উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির সমস্যা হয়ে থাকে। তাই জন্য অক্টোবরে আবার শুটিংয়ের জন্য যেতে হয় কিন্তু এবারে ব্যতিক্রম হলো, পুরোপুরিভাবে পাঠ চুকিয়ে উত্তরবঙ্গ থেকে রাজ্যে ফিরেছেন তিনি।

পরিচালক সৌমিক হালদার একজন DOP ছিলেন, ফলতো তিনি জানেন কোন জায়গায় কোন শট নিলে ঝটপট কাজ হবে। তাই কোন ঝামেলা ছাড়াই শুটিংয়ের কাজ তাড়াতাড়ি শেষ হয়েছে সেখানে। ঘিস নদীর মাঝে শুটিং হয়েছে, নানা ধরনের অ্যাডভেঞ্চার এর মুখোমুখি হয়েছেন অভিনেতা। শুটিং সেরে কিছুদিন আগেই কলকাতায় ফিরেছেন চন্দন সেন। মঙ্গলবার থেকেই খড়কুটোর শুটিং ফ্লোরে যোগ দেবেন তিনি, বৃহস্পতি অথবা শুক্রবার থেকে খড়কুটো ধারাবাহিকে আবার দেখা যাবে সকলের প্রিয় মেজকা কে।

Back to top button