টলিউডStory

অপর্ণা সেন এর ফিরিয়ে দেওয়া ছবি লুফে নিয়েই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে বাজিমাত করেছিলেন শর্মিলা ঠাকুর

বাংলা সিনেমা জগতের শর্মিলা ঠাকুর একজন অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ। তবে বাংলা সিনেমার পর্দায় তাকে যতটা না বেশি দেখা গিয়েছে তার থেকে অনেক বেশি তাকে দেখা গিয়েছে বলিউডের হিন্দি সিনেমার পর্দায়। বাংলা সিনেমা পর্দায় শর্মিলা ঠাকুরের প্রথম ছবি শক্তি সামন্ত পরিচালিত অপুর সংসার ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৫৯ সালে। শক্তি সামন্তর হাত ধরেই শর্মিলা ঠাকুরের সিনেমা জগতে পা রাখা। এর পরবর্তীকালে শর্মিলা ঠাকুর কে তেমনভাবে বাংলা সিনেমার পর্দায় দেখা যায়নি। ১৯৪৬ সালে হলিউড একটি সিনেমা রিলিজ করে যার নাম “টু ইচ হিজ ওন”।

এই ছবির অনুকরণেই বলিউডের তৈরি হয় “আরাধনা” সিনেমাটি। ১৯৬৯ সালে এই ছবি মুক্তি পায়। সিনেমা জগতে এই ছবি পেশ করেছিল এবং দর্শকের মনে শর্মিলা ঠাকুর বেশ ভালো মত জায়গা করে নিয়েছিল। আরাধনা ছবির মাধ্যমে শর্মিলা ঠাকুর জিতে নেয় শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড।

আরো একবার শক্তি-সামর্থের হাত ধরেই বলিউডে ও শর্মিলা ঠাকুর আসর জমিয়ে নেয়। ফের ১৯৬৪ সালে মুক্তি পায় “কাশ্মীর কি কলি” ছবিটি। তার ঠিক দু বছর পরে রিলিজ করে “অ্যান ইভিনিং ইন প্যারিস”। ছবিটি করার সময় শর্মিলা ঠাকুর কে বিকিনি পরিধান করতে দেখা যায়। সেইসময় টাইগারের সঙ্গে তার বেশ ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব হয়।

তবে শর্মিলা ঠাকুরের প্রথম হিন্দি ছবি আরাধনা বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল। এতটাই জনপ্রিয়তা পেয়েছিল যে পরে এটি হিন্দি গান বাংলায় ডাবিং করা হয় এছাড়াও তামিল-তেলেগু বিভিন্ন ভাষায় এই ছবির ডাবিং হয়। কানাঘুষো শোনা যায় এই আরাধনা ছবিটি প্রথম করার কথা ছিল অপর্ণা সেনের। তবে সিনেমাটি করতে তিনি নাকচ করে দেন ফলে সেই সুযোগ যায় শর্মিলা ঠাকুর এর কাছে। এরপরই শর্মিলা ঠাকুর বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে সবার মাঝে।

এরপর বিভিন্ন ছবির মাধ্যমে দর্শকের মন জয় করতে থাকেন তিনি। বক্সঅফিসে হিট করে প্রতিটি ছবি। জিতে নেন একের পর এক পুরস্কার। সেইদিনের অপর্ণা সেনের নাকচ করায় শর্মিলা ঠাকুরের সাফল্যের রাস্তা খুলে গেছিল।

ঠিক তার পরের বছরই ১৯৭০ সালে “অরণ্যের দিনরাত্রি” তে একই পর্দায় আসে অপর্ণা শর্মিলা জুটি। সত্যজিৎ রায়ের এই ছবিতে দুজনকে একসাথে দেখা গেল পরবর্তী আর কোনো ছবিতেই দুজনকে একসাথে দেখা যায়নি। শর্মিলা ঠাকুর পরবর্তীকালে বলিউড কাপাতে থাকে এবং অপর্ণা সেন একাধারে বাংলা বিভিন্ন হিট সিনেমা করতে থাকেন।

এরপর আবার ২০০৯ সালে একসাথে করে দেয় অপর্ণা এবং শর্মিলাকে। আবার একই সাথে পর্দায় দেখা যায় দুই নায়িকা কে অন্তহীন ছবির মাধ্যমে। যে ছবি আজও সকলের মনে দাগ কেটে রয়েছে। বলিউড কাঁপিয়ে বেড়ানো শর্মিলা ঠাকুর আমাদের বাংলার কলকাতার ঠাকুর পরিবারের ই মেয়ে।

Back to top button