টলিউড

আমার ছেলে-মেয়েরা হাউহাউ করে কেঁদেছে: ইমন চক্রবর্তী, একজন শিক্ষিকা হিসেবে তার শিক্ষার্থীদের ঢাল হয়ে দাঁড়ালেন ইমন চক্রবর্তী, নেটিজেনদের খারাপ মন্তব্যে ক্ষুব্ধ গায়িকা

টলিউড ইন্ডাস্ট্রির গায়িকা হিসেবে ইমন চক্রবর্তীর নাম সকলেরই জানা। তার গাওয়া প্রতিটা গান মানুষের মনে দাগ কেটে গিয়েছে। তার গলায় গান শুনতে পছন্দ করেন অনেকেই। ইতিমধ্যে একজন ভালো গায়িকা হিসেবে একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন ইমন চক্রবর্তী। তবে এই গায়িকা একাধিক কারণে প্রায়ই কটাক্ষের শিকার হন নেটিজেনদের একাংশের মাঝে। সম্প্রতি তার পাশাপাশি কটুক্তি শুনতে হয়েছে তার স্টুডেন্টদের। যার জন্য চূড়ান্ত রেগে গিয়েছেন গায়িকা। সম্প্রতি সেই ক্ষোভ লাইভে এসে উগ্রে দিলেন তিনি।

সম্প্রতি ইমন চক্রবর্তী উপস্থিত ছিলেন ‘আকাশ আট’এর জনপ্রিয় শো ‘গুড মর্নিং আকাশ’এ। নিজের কিছু স্টুডেন্টদের নিয়ে গায়িকা উপস্থিত ছিলেন সেখানে। এই অনুষ্ঠান টেলিভিশনের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে ‘আকাশ ৮’এর অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ থেকেও শেয়ার করা হয়ে থাকে। আর সেই ফেসবুক পেজের ভিডিওর কমেন্ট বক্সে আসতে থাকে একের পর এক কু-মন্তব্য। অভিনেত্রী নিজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে এই শোতে গিয়েছিলেন বলেই অনেকে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। আর তাতেই রেগে গিয়েছেন গায়িকা। নিজের সন্তানসম ছাত্র-ছাত্রীদের ঢাল হয়ে দাঁড়িয়েছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভে এসে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন গায়িকা।

তিনি রীতিমতো জোর গলায় সেইসমস্ত কু-মন্তব্যকারীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, তারা তার ছাত্র ছাত্রীদের গানের কোনো একটা ভুল বার করে দেখাক। তার যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে, যারা তার ছাত্র-ছাত্রীদের এমন সমস্ত কথা বলেছেন তারা ঠিক কতটা গান বোঝেন। যারা এমন সমস্ত মন্তব্য করেছেন তাদের উদ্দেশ্যে তিনি জানিয়েছেন, তিনি অনেক কষ্ট করে আজকের এই জায়গায় পৌঁছেছেন। নিজেকে প্রমাণ করেছেন। যারা এমন ধরনের মন্তব্য করেছেন তারাও সকলের সামনে এসে নিজেদের প্রমাণ করুক। কিন্তু তার জন্য ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের উদ্দেশ্যে এমন মন্তব্য করা তাদের উচিৎ হয়নি বলেই মত ইমন চক্রবর্তীর।

তার শুভাকাঙ্খীরা তাকে এই সমস্ত বিষয় পাত্তা দিতে মানা করেছেন। এই প্রসঙ্গে তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, তিনি এই ধরনের বিষয়কে একেবারেই পাত্তা দেন না। কিন্তু নিজের সন্তানসম ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য তিনি লাইভে এসে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানালেন, কারণ তারা সবে সবে শিখছে। তাদের অনুপ্রাণিত করার জন্যই তিনি এই ঘটনার প্রতিবাদ জানালেন। তিনি এও জানান, তার গুরুর সাথে তিনি গান গেয়েছেন। বর্তমানে নিজে একজন গানের শিক্ষিকা হিসেবে নিজের ছাত্র-ছাত্রীদের সুযোগ করে দেওয়া তার কর্তব্য। এখানে অন্যায়ের কিছুই দেখেন না তিনি।

কয়েকদিন আগেই কোভিড আক্রান্ত হয়েছিলেন ইমন চক্রবর্তী। বর্তমানে করোনা থেকে মুক্তি পেলেও শারীরিকভাবে এখনো খুবই দুর্বল রয়েছেন গায়িকা, তা তার চোখ মুখ দেখেই স্পষ্ট হয়েছে। তিনি একটানা তিন ঘণ্টা গাইতে পারবেন না, একথা আগেই জানিয়েছিলেন চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে। সেই কারণের জন্যই পায়েল সিনহা ‘আকাশ ৮’এর তরফ থেকে গায়িকাকে বলেছিলেন তার কয়েকজন ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে আসতে। আর এই দৃশ্য দেখার ফর থেকেই সূত্রপাত হয়েছে এই ঘটনার, যাতে ভীষণভাবে ক্ষুব্ধ হয়ে রয়েছেন ইমন চক্রবর্তী।

Back to top button