‘নুসরতকে অনেকবার বলেছিলাম বিয়ের রেজিস্ট্রেশনের জন্য, ও এড়িয়ে গিয়েছে’: নিখিল জৈন

সম্প্রতি নুসরাত জাহান মিডিয়ার সামনে বলেন তার সাথে নিখিলের বিয়ে হয়নি। আর এই মন্তব্যটি ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতে উত্তর দিলেন নিখিল জৈন। বৃহস্পতিবার আইনজীবী মারফত নিজের বিবৃতি জানান নিখিল জৈন।

তিনি বলেন তিনি নুসরাতের প্রেমে পড়ার পর তাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে সেই প্রস্তাব নুসরাত খুবই উচ্ছ্বসিত ভাবে গ্রহণ করেছিলেন। এরপর ২০১৯ সালে তুরস্কের বোদরুমে তাদের বিয়ে হয়। এরপর তারা সকলের সামনে কিংবা যে কোন জায়গাতে স্বামী-স্ত্রী হিসেবেই যেতেন।

নিখিল এও জানান ২০২০ সালের আগস্ট মাস পর্যন্ত সব ঠিকঠাকই ছিল । কিন্তু তারপর থেকে হঠাৎই শুরু হয় সমস্যা। ওই সময় থেকেই নুসরাতের আচরণ পাল্টে যেতে থাকে।

এরপর ডিসেম্বর মাসে নুসরাত ব্যাগপত্তর গুছিয়ে বালিগঞ্জের ফ্ল্যাটে শিফট করে যান। এমনটাই জানিয়েছেন নিখিল। এরপরে তার সমস্ত দরকারি কাগজপত্র তার কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়।

নিখিল জৈন বিবৃতিতে বলেন ২০২০ সালের ৫-ই নভেম্বর পর্যন্ত তারা স্বামী-স্ত্রী হিসেবেই ছিলেন। নিখিল জৈন বলেন তারা যখন একসঙ্গে থাকতেন তখন নিখিল নুসরাতকে অনেকবার বলেছেন বিয়ের রেজিস্ট্রেশন করে নিতে কিন্তু নুসরাত প্রত্যেকবারই সেই কথা এড়িয়ে গেছেন।

সংবাদমাধ্যমে একের পর এক খবর দেখে খারাপ লাগা থেকেই নিখিল ৮ ই মার্চ নুসরাত এর বিরুদ্ধে আদালতে সিভিল স্যুট দায়ের করেন। তিনি এও জানান ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তিনি এত কথা বলতে চাননি কিন্তু গতকাল নুসরাতের ববিবৃতির জন্যই তাকে বাধ্য হয়ে মুখ খুলতে হলো।

শেষে তিনি সমস্ত সংবাদমাধ্যমকে অনুরোধ করেছেন তাকে এই বিষয়ে আর কোন প্রশ্ন না করতে। কারণ এই বিষয়ে সম্পূর্ণ তার ব্যক্তিগত এবং বর্তমানে তা আদালতের বিচারাধীন।