বাংলা সিরিয়াল

“আমি মনেপ্রাণে চাই লালনের যেন কোনদিন অতীত মনে না পড়ে” – লালন নিজের স্মৃতিশক্তি হারিয়ে ফেলেছে আর অন্যদিকে ফুলঝুরির অ্যাটিটিউড ভরা ন্যাকামো নিতে পারছেন না দর্শক

বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে বেশ কয়েকটি ধারাবাহিকের ট্র্যাক খুব ভালো যাচ্ছে। তার মধ্যে একটি হলো স্টার জলসার “ধুলোকনা”। এই উত্তেজনাপূর্ণ ট্র্যাকের জন্যই মানুষ প্রত্যেকদিন রাত আটটার সময় বসছেন টেলিভিশনের সামনে। তবে ধারাবাহিকের গল্প নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ হাসি ঠাট্টা হচ্ছে। লিপস্টিক দিয়ে সিঁদুর পরানোতে বেশ ভাল রকম ট্রোল করা হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়াতে। আবারো ধুলোকণার বিষয় নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করলেন দর্শক।

কারণ গতকাল আমরা দেখেছি ওই একই ট্র্যাকে লালনের এখনো কিছু মনে পড়েনি। বিয়ের পিঁড়িতে লিপস্টিক দিয়ে সে তিতিরকে সিঁদুর পরিয়েছে। অন্যদিকে ফুলছুরি লালনের স্মৃতিশক্তি হারানোর বিষয়টিকে পাত্তাই দিচ্ছে না। নিজের মত দেখাচ্ছে যে সে অভিমান করছে। এদিকে ন্যাকামো করে একগাদা কান্নাকাটি করতে দেখা যাচ্ছে। এসব একদম পছন্দ করছেন না বাংলার দর্শক। তাই এই বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে কিছু কড়া কড়া কথা শুনিয়ে দিয়েছেন নেটিজেনারা।

এঁদের মধ্যে একজন লিখেছেন, “আমি মনেপ্রাণে চাই লালনের যেন কোনদিন অতীত মনে না পড়ে। এই মেয়েটা লালন কে সবসময় ইগনোর করে গেছে। বিপদে কখনো পাশে থাকে নাই। এখন লালনের অতীত মনে পড়ে নাই সেখানেও রাগ। ওর এটিটিউড দেখাচ্ছে। কেন ও কোন মহারানী লালন কি ফেলনা? ন্যাকামো আর নেওয়া যাচ্ছে না”।

যদিও এই মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন অনেকেই। অনেকেই বলেছেন, আসলে ফুলঝুরি লালন কে বড্ড ভালোবাসে তাই সে এমন করছে। যদিও এই গোষ্ঠীর মানুষের সংখ্যা কম। বেশিরভাগ মানুষেরই ফুলঝুরির এরকম অ্যাটিটিউড দেখিয়ে ন্যাকামো করা খুবই বিরক্তের মনে হচ্ছে। একটা ছেলে যে নিজের স্মৃতিশক্তি হারিয়ে ফেলেছে তার উপর এত রাগ কোথা থেকে আসছে ফুলঝুরির? এবার শুধু এটাই দেখার যে এর পরে আর কি কি দেখানো হবে।

Back to top button