বাংলা সিরিয়াল

দীপাবলিতে নিজের রূপের ছটায় সোশ্যাল মিডিয়া আলোকিত করলেন মিঠাই! অভিনেত্রীর রূপের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেট পাড়া

বর্তমানে টেলিভিশন জগতের অন্যতম জনপ্রিয় একটি ধারাবাহিক হলো “মিঠাই”। এবং জি বাংলার অন্যতম সাকসেসফুল একটি প্রজেক্ট বলা যায়। এমন একটা সময় ছিল যখন সপ্তাহর পর সপ্তাহ ধরে “বঙ্গ সেরা” হয়েছে এই ধারাবাহিক। সাথেই রেকর্ড ব্রেকিং পারফরম্যান্স করেছেন টিআরপি রেটিংয়ে। কিন্তু বর্তমানে টিআরপি ক্রমশ নিম্নগামী এই ধারাবাহিকের। তবে বাংলার প্রত্যেকটি ঘরের পরিচিত ধারাবাহিক এটি। ধারাবাহিকে একদম সাধারণ শাড়ি পরা বেনুনি বাধা মেয়ে হিসেবে মিঠাইকে দেখানো হয়। কিন্তু বাস্তব জীবনের সৌমি ভীষণ স্টাইলিশ। বিভিন্ন ধরনের বিভিন্ন ফ্যাশন ফটোশুট তিনি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন।

আবারো এরকমই একটি ফটোশুটের কিছু মুহূর্ত ভাইরাল হলো সোশ্যাল মিডিয়াতে। সৌমির ইনস্টাগ্রামে যে ভিডিওটি দেখতে পাওয়া গেল সেখানে অভিনেত্রীর পরনে রয়েছে, কমলা রঙের স্লিভলেস ক্রপ টপ ও একই রঙের শাড়ি। সম্পূর্ণ শাড়িটি ফ্লোরাল প্রিন্টের। তবে বর্তমানের ফ্যাশন সেন্স কে একটু এডভান্স করে অভিনেত্রী শাড়িটি পড়েছেন ধুতির আকারে। কোমরে অফ্ফোয়াইট রং এর বেল্ট। এবং আঁচল গিয়েছে হাতের ওপর দিয়ে। পোশাকেই আগুন ধরিয়েছেন অভিনেত্রী।

এরপরে তো রয়েছে এর ওপর অভিনেত্রীর সাজগোজ। অভিনেত্রী লম্বা চুল পুরোটাই খোলা। ফ্যাশনে উজ্জ্বল মেকআপ করেছেন অভিনেত্রী। গয়না হিসেবে কানে অভিনেত্রী পড়ে রয়েছেন স্টোন স্টাটেড অক্সিডাইস হাফ ইয়ার রিং। আর গলায় অক্সিডাইস পাথর বসানো লেয়ার্ড নেক পিস। আর জুতো হিসেবে রয়েছে পায়ে গোলাপি রঙের কিটো। সম্পূর্ণ ভিডিওটিতে অভিনেত্রী নিজের রূপের ছটা ছড়িয়ে ডাইনিং স্পেসে হেটে বেড়াচ্ছেন।

সম্পূর্ণ ভিডিওটি শেয়ার করে অভিনেত্রী ক্যাপশনে লিখেছেন, “তেরে বিন”। আর এই ক্যাপশন এর সাথে লাল রঙের হার্ট ইমোজি জুড়ে দিয়েছেন তিনি। অভিনেত্রীর এই সমস্ত স্টাইল যথেষ্ট পছন্দ করছেন দর্শক মহল। প্রসঙ্গত ধারাবাহিকে মিঠাই আর সিদ্ধার্থের সম্পর্ক খুব একটা পছন্দ করছেন না দর্শক। তাঁদের এটা ব্যক্তিগত সম্পর্কের রেশ সেটা সবাই বুঝতে পারছে।

তবে কিছুদিন আগেও তাঁরা জানিয়েছিলেন তাঁদের মধ্যেকার সম্পর্ক এখন ভালো হয়ে গিয়েছে। কিন্তু সেটা আর মানুষ সত্যি বলে মনে করতে পারছেন না। কিন্তু অভিনেত্রী সৌমিয় বলেছিলেন যে তাঁদের মধ্যকার যায় সম্পর্ক থাকুক না কেন সেটা কখনোই অনস্ক্রিনে প্রভাব ফেলবে না। কিন্তু এমনটাও ঘটেনি। সৌমি আর আদৃতর ব্যক্তিগত কারণে অনস্ক্রিনে যতটা প্রভাব পড়ছে তাতে বিরক্ত দর্শক। আসলে দর্শকের মতামত ত্রিকোণ প্রেমের কারনে আজকে তাঁদের সম্পর্কের এই অবস্থা। যার কারণে অনস্ক্রিনে প্রভাব পড়ছে আর ধারাবাহিকের টিআরপি ক্রমাগত নেমেই যাচ্ছে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Rudra Saha (@rudra_saha_official)

Back to top button