বাংলা সিরিয়াল

রিকি দ্য রকস্টার ই সিদ্ধার্থ! দাদাভাইকে চিনতে পেরে মিঠাইকে বলে দিলো নিপা, রিকির মাছের কাঁটা বেছে দিল মিঠাই, ভাইরাল ভিডিও

জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই তে তুফান মেল ও উচ্ছেবাবু অর্থাৎ মিঠাই ও সিদ্ধার্থের টক ঝাল মিষ্টি রসায়ন সকলের খুব ভালো লাগে। এই ধারাবাহিকে একজন মিষ্টির কারিগরের গল্পকে তুলে ধরা হয়েছে। মিষ্টির কারিগর থেকে সে কীভাবে মোদক বাড়ির বউ হয়ে উঠলো, তারপর কীভাবে মোদকদের ব্যবসার হাল ধরলো এবং ধীরে ধীরে নিজের স্বামী সিদ্ধার্থ মোদকের মন জয় করল তাই এতদিন ধরে দেখিয়ে এসেছে এই ধারাবাহিক।

একসময়কার বেঙ্গল টপার হওয়া এই ধারাবাহিকে বর্তমানে একটা নতুন টুইস্ট এসেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে কিছু অসৎ ব্যবসায়ীদের ধরবার জন্য সিদ্ধার্থ বহু চেষ্টা করে এবং চেষ্টা করার পরেও যখন সে বিফল হয় তখন সে মিঠাইকে ফোন করে জানায়, সে খুব জটিল একটা কাজে নেমেছে তাই যদি কখনো মিঠাই শোনে যে তার এক্সিডেন্ট হয়েছে বা সে নিখোঁজ হয়েছে তাহলে যেন ভেঙে না পড়ে তার জন্য অপেক্ষা করে সে ঠিক সময় মতো ফিরে আসবে। এই কথা বলার কিছুক্ষণের মধ্যেই সিদ্ধার্থের অ্যাক্সিডেন্টের খবর পাওয়া যায়। যদিও সিদ্ধার্থের বডি পাওয়া যায়নি। এরপর কয়েক মাস কেটে যায় আবির্ভাব হয় রিকি দ্য রকস্টারের, যাকে সিদ্ধার্থ রূপে চিনতে পেরে ফিরিয়ে নিয়ে আসে মিঠাই। কিন্তু সিদ্ধার্থ এত সহজে ধরা দিতে চায়না, তাই সে জানিয়ে দেয় যে তার গার্লফ্রেন্ড আছে এরপর ধারাবাহিকে এন্ট্রি নেয় সিদ্ধার্থের গার্লফ্রেন্ড। এই সময় থেকেই বিশ্বাসটা একটু একটু করে নড়বড়ে হতে শুরু করে মিঠাই এর। তবে সম্প্রতি প্রোমোতে দেখানো হয়েছে রকির মাছ বেছে দিচ্ছে মিঠাই!

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রাজীব রকিকে বলছে, তোমার বাড়ি এসে আমরা পাত পেড়ে খাচ্ছি কিন্তু তুমি খাবে না তা তো হয় না। মিঠাই রকিকে মাছের কাঁটা বেছে দাও। মিঠাই কিন্তু মাছের কাঁটা বাছতে রাজি হলো না। সে রকির গার্লফ্রেন্ডকে বললো রকির মাছের কাঁটাটা বেছে দিতে। কিন্তু রকির গার্লফ্রেন্ড জানালো সে এসব পারেনা কারণ সে মাছ খায় না। এরপর নন্দা বলে কাউকে না কাউকে তো মাছটা বেছে দিতে হবে। নন্দা মিঠাই কে বলে, মিঠাই যাওনা গিয়ে কাঁটাটা বেছে দাও। এই কাজটা তোমার থেকে ভালো আর কেউ পারবে বলে মনে হয় না। এরপর নিপা মিঠাইকে বোঝায় যে এটাই আমাদের দাদাভাই দেখো তোমার দিকে কীভাবে তাকিয়ে আছে, যাও গিয়ে কাঁটাটা বেছে দাও।

মিঠাই কাটা বাছতে রাজি হয় এবং সে রকি দ্য রকস্টারের মাছের কাঁটা বাছতে শুরু করে। এইসময় রাতুল রকির গার্লফ্রেন্ড এন্জিকে বলে, আমি কি একটা মাছটা বেছে দেব তোমাকে। রাতুলের এই কথায় শ্রীতমা রেগে যায়। রাতুল যখন এন্জির মাছের কাঁটা বাছ ছিলো, তখন রাজীব তাকে কনুই দিয়ে ধাক্কা মেরে শ্রীতমাকে দেখিয়ে দেয়। রাতুল শ্রীতমাকে বলে আমি তো হেল্প করছি ওকে। এরপর রাতুল মাছটা বাছতে শুরু করে অন্যদিকে রকি দ্য রকস্টার বেশী সিদ্ধার্থ মনে মনে বলতে শুরু করে হান্ড্রেড পারসেন্ট আজ বাড়ি গিয়ে মার খাবে রাতুল। অন্যদিকে মিঠাই জানায় তার মাছ বাছা হয়ে গেছে। এই প্রোমো দেখে যারপরনাই খুশি হয়েছে দর্শক, এবার কবে সিদ্ধার্থ নিজের আসল রূপে ফিরে আসে সেটাই দেখার অপেক্ষা!

Back to top button