বাংলা সিরিয়াল

জীবন যুদ্ধে হার না মানার কাহিনী নিয়ে তৈরি হওয়া সাহেবের চিঠির টিআরপি কমে যাওয়ার কারণ সামনে এলো অবশেষে! স্টার জলসা এই একটি বিষয়ে নজর রাখলেই টিআরপি আবার বাড়বে মনে করছেন নেটিজেনদের একাংশ!

যে কোনো ধারাবাহিকের ক্ষেত্রে টিআরপি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় কারণ কোন ধারাবাহিকের টিআরপি কমে গেলে সেই ধারাবাহিক অকালে চলে যায় তার নিদর্শন এর আগে বহুবার পাওয়া গেছে। বৌমা একঘর খুব তাড়াতাড়ি বন্ধ হয়ে গেল এই টিআরপি না পাওয়ার কারণে। তাই কোন ধারাবাহিকের যখন টিআরপি কমে যায় তখন সেই ধারাবাহিকের অনুরাগীরা খুব চিন্তায় পড়ে যায়। স্টার জলসা জনপ্রিয় ধারাবাহিক সাহেবের চিঠি শুরুর পর থেকেই বেশ জনপ্রিয়, এর আগে একবার খেলনা বাড়ির সাথে যৌথভাবে স্লট লিড করেছে এই ধারাবাহিক। ‌ কিন্তু এই সপ্তাহে এই ধারাবাহিকের টিআরপি কমেছে।

5.4 থেকে সাহেবের চিঠি টিআরপি কমে হয়ে গেছে 5.1। এই বিষয়টি সাহেবের চিঠি ভক্তদের কাছে রীতিমত চিন্তার এবং উদ্বেগের বিষয় কেন এই টিআরপি কমল তা নিয়ে তারা সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো আলোচনা শুরু করে দিয়েছেন। ‌ এই প্রসঙ্গে আলোচনা উঠলে এক অংশের মানুষ বলছেন যে, মনে হয় খলনায়িকা রাইমার ওভার এক্টিং মানুষ ঠিক মতো নেয় নি।

আবার অনেকের মতে এই টিআরপি কমার পিছনে সবথেকে বড় কারণ হলো সাহেবের চিঠি ধারাবাহিকের রিপিট টেলিকাস্ট। যে ধারাবাহিক সন্ধ্যে সাড়ে ছটায় হচ্ছে সেই ধারাবাহিক আবার রিপিট হচ্ছে রাত্রি 11 টায়। একই দিনের মধ্যে মানুষ দুবার ওই ধারাবাহিক দেখতে পাচ্ছেন। তাই কোনো কারণে যদি সন্ধ্যে দেওয়ার সময় মানুষ সাড়ে ছটার টিভি খুলতে না পারেন তাহলে উদ্বিগ্ন হন না কারণ তারা জানেন যে রাত্রি এগারোটায় তারা আবার এই ধারাবাহিকটি দেখতে পাবেন। খুব অদ্ভুতভাবে দেখা যাচ্ছে রাত্রি এগারোটা টিআরপিও কিন্তু খারাপ নয়। রাত্রি এগারোটায় এই ধারাবাহিক 1.4-2 অবধি টি আর পি পায়। তাই স্টার জলসা কর্তৃপক্ষ যদি রাত্রি এগারোটায় সাহেবের চিঠির টেলিকাস্ট বন্ধ করে পরের দিন করতেন তাহলে রাত্রের ঐ টিআরপিটা সন্ধ্যের দিকে অ্যাড হতো বলে মনে করছেন নেটিজেনদের একাংশ।

Back to top button