বাংলা সিরিয়াল

প্রথম ধারাবাহিক অপরাজিতা অপু সুপার হিট হওয়ার পর দ্বিতীয় ধারাবাহিক ‘বৌমা এক ঘর’ তিন মাসেই বন্ধ! ভেঙে পড়েছেন নায়িকা সুস্মিতা

মানুষের মন জয় করতে যখন একটার পর একটা ধারাবাহিক আসে তখন স্বাভাবিক ভাবেই চ্যানেলে চ্যানেলে ধারাবাহিকে ধারাবাহিকে একটা লড়াই শুরু হয়ে যায়।‌‌ জনপ্রিয়তার লড়াই, টিকে থাকার লড়াই, টিআরপি ধরে রাখার লড়াই। এই টিআরপি ধরে রাখার লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়ে অনেক সময় অনেক ধারাবাহিক। তাই দেখা যায় জনপ্রিয়তা থাকা সত্ত্বেও শুধুমাত্র টিআরপি কম থাকার জন্য অনেক ধারাবাহিকের গল্প ভালো হলেও অল্প কয়েক সময়ের মধ্যেই তা শেষ হয়ে যায়। স্বাভাবিকভাবেই যে কোনো ধারাবাহিক শুরু হয় অনেক আশা-আকাঙ্ক্ষা নিয়ে কিন্তু মাঝপথে টিআরপির অভাবে যদি কোন ভালো গল্প শেষ হয়ে যায় সে ক্ষেত্রে সেই ধারাবাহিকের অনুরাগীরা যেমন ভেঙে পড়ে তেমনি ভেঙে পড়ে ধারাবাহিকের সঙ্গে যুক্ত থাকা মানুষজন। যেমনটা হয়েছে বৌমা এক ঘরের নায়িকা সুস্মিতা দের ক্ষেত্রে।

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘অপরাজিতা অপু’তে অপুর চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা লাভ করা সুস্মিতা কখনো ভাবতেই পারেননি স্টার জলসায় তার নতুন শুরু হাওয়া ধারাবাহিক ‘বৌমা এক ঘর’ মাত্র তিন মাসের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে। এই ধারাবাহিকে তার অভিনীত চরিত্রের নাম টিয়া। ধারাবাহিকটি বেশ ভালোই চলছিলো, কিন্তু টিআরপির লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়ার জন্য চ্যানেল কর্তৃপক্ষ আচমকায় এটি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় এবং এর পরিবর্তে অন্য ধারাবাহিক আনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। সেই অনুযায়ী তিন দিন আগেই এই ধারাবাহিকের শুটিং শেষ হয়ে গেছে।

এখন সুস্মিতার হাতে আর কোন কাজ নেই শুটিংয়ের তাড়াও নেই। কিন্তু বিস্ময় কাটছে না তার। ধারাবাহিক বন্ধ হওয়া প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন, “প্রচন্ড মন খারাপ। হঠাৎ জানতে পারলাম ধারাবাহিকটি আর দেখানো হবে না। সেই মুহূর্তে মাথায় বাজ পড়েছিল। কিন্তু কোন কিছু শুরু হলে তার শেষও হবে। এটাই নিয়ম। তাই মেনে নিয়েছি। দর্শকের কেন পছন্দ হলো না সত্যিই বুঝতে পারলাম না।” এই মুহূর্তে অভিনেত্রী নিজেকে সময় দিচ্ছেন এবং নিজেকে প্রস্তুত করছেন আবার নতুন ভাবে নতুন কোন প্রজেক্টে ফিরে আসার জন্য।

Back to top button