বাংলা সিরিয়াল

রান্না ঘরের ভাড়ার শূন্য থাকলেও শুক্লাদি কখনো তা বুঝতে দিতেন না! কিচেন কুইন শুক্লা মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণে লিখলেন রান্নাঘরের সুদীপা চ্যাটার্জী

যে কোন মৃত্যুই মানুষকে অত্যন্ত কষ্ট দেয় আর সেই মৃত্যু যদি হয় খুব পরিচিত কোন মানুষের তাহলে সেই মৃত্যু মনের ভেতরে আরো ছাপ ফেলে যায়। ঠিক তেমনটাই হলো শুক্লা মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর ক্ষেত্রে। ছোট থেকে যার রান্না শিখে বড় হয়েছে মানুষ রান্নাঘরের সম্রাঞ্জী রূপে পরিচিত সেই শুক্লা মুখোপাধ্যায় আর নেই, রান্না প্রেমীদের কাছে যা অত্যন্ত দুঃসংবাদ। কিচেন কুইন নামে পরিচিত ছিলেন শুক্লা মুখোপাধ্যায়, যে কোন রান্নায় খুব সুন্দর ভাবে করতে পারতেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন এর আগেও বেশ কয়েকবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তবে এইবার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর আর ফিরতে পারলেন না ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌ তিনি। গত বুধবার প্রয়াত হন তিনি।

শুক্লা মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যু সম্পর্কে তার যোগ্য উত্তরসূরি সুদীপা চট্টোপাধ্যায় বলেন, “এ মাসের ৮ তারিখ ওর জন্মদিন ছিল। এত ব্যস্ত ছিলাম যে শুভেচ্ছা জানাতে ভুলে গিয়েছিলাম। সেটাই আজ সবচেয়ে বেশি যন্ত্রণা দিচ্ছে।” রান্নাঘরের প্রথম দিকের দিন গুলিতে এসে শুক্লা মুখোপাধ্যায় নিত্যনতুন রান্না করে দিতেন। এই প্রসঙ্গে সুদীপা বলেন,“রান্নাঘরের একদম জন্ম লগ্ন থেকে তিনি সঙ্গে ছিলেন। তখন রান্নাঘরের এত বাজেট ছিল না, উনি নিজেই তিন চারটে মোচা কিনে আনতেন। তারপর নিজেই মাথা কাটিয়ে মোচা দিয়েই তিন চার রকমের পদ ভেবে ভেবে তৈরি করতেন।”

মোচা ছাড়াও পটলের খোসা থেকে আলুর খোসা যে কোনো পদ‌ই তার হাতের গুণে সুস্বাদু হয়ে উঠতো‌‌। শুক্লা মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যু সম্পর্কে শোক প্রকাশ করে একটি পোষ্টে সুদীপা লেখেন,“কত দিন তোমার কোনো খোঁজ নিই নি। কোভিড পরবর্তী পরিস্থিতি আমাদের কেমন দুটিতে করে দিয়েছে। তোমার তো এত তাড়াতাড়ি যাবার কথা ছিল না।”

Back to top button