বাংলা সিরিয়াল

‘ধারাবাহিকের কোন গল্প নেই শুধু কাস্টিংয়ের জোরেই টিআরপি টপার হয় গাঁটছাড়া’! অভিযোগ নেটিজেনদের! তুমুল ট্রোলড সোলাঙ্কি

দীর্ঘদিনের বেঙ্গল টপার ধারাবাহিক ‘মিঠাই’কে এক ঝটকায় হারিয়ে দিয়েছে স্টার জলসার সদ্য আসা ধারাবাহিক ‘গাঁট ছড়া’। এই ধারাবাহিক নিয়ে দর্শকদের মধ্যে স্বাভাবিকভাবেই তাই একটা আলাদা উন্মাদনা আছে, টিআরপি তালিকায় সব সময় শীর্ষ স্থানীয় হয়ে থাকে এই ধারাবাহিক, গতকালের টিআরপি অনুযায়ী দেখা গেছে বেঙ্গল টপার না হলেও দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গাঁটছড়া। অর্থাৎ বেঙ্গল টপার থেকে ছিটকে গেল চ্যানেলের মধ্যে সবসময় এই ধারাবাহিক শীর্ষেই থাকে। প্রবল জনপ্রিয় এই ধারাবাহিক নিয়ে এবার দর্শক মনে প্রশ্ন উঠছে।

এই ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছে সৎ আত্মাভিমানী খড়ির সাথে বিয়ে হয়েছে বড়লোকের বদমেজাজি ছেলে ঋদ্ধিমানের। একরকম অনিচ্ছা পূর্বক হওয়া এই বিয়ে ধীরে ধীরে ভালোবাসায় রূপান্তরিত হয়েছে, একসময় ঋদ্ধি খড়িকে নিজের স্ত্রী হিসেবে না মানলেও বর্তমানে মানে এবং যথেষ্ট সম্মান দেয়। নিজের ভুল স্বীকার করে খড়ি কে সম্মান দিয়ে সে তার বাড়িতে ফিরিয়েও এনেছে। কিন্তু সাম্প্রতিককালের প্রোমো প্রকাশিত হতেই দর্শক মনে প্রশ্ন উঠেছে।

সম্প্রতি যে প্রোমোটি বেরিয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে, ভট্টাচার্য্য বাড়ির সামনে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করবে ঋদ্ধি আর এই পুরো বিষয়টাতে তার স্ত্রী তার পাশে থাকবে। এই প্রোমো বেরোনোর পর বেশ কিছু নেটিজেন আপত্তি তুলেছেন। তাদের বক্তব্য এতদিন ধরে যে এই ধারাবাহিকটি চলেছে তার পরেও এই ধারাবাহিকের আসল গল্প বা মূল বিষয়বস্তু কী তা আদপেও বোঝা গেল না। ক্রমাগত একই গল্প বারবার চলছে রাহুল ও তার মা আর ছোট পিশেমশাই শয়তানি করে, তাদের কাজই হলো খড়ি ও ঋদ্ধিকে বিপদে ফেলা আর তারপর একবার খড়ি নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করে তো অন্যবার ঋদ্ধি। এছাড়া আর কোন গল্প দেখানো হচ্ছে না এই ধারাবাহিকে, যার তুমুল প্রতিবাদ করেছেন কিছু নেটিজেন। তারা পরিষ্কার বলেছেন যে গাঁটছড়ার আসল গল্প কি তারা এখনও তা বুঝতে পারেননি শুধু দেখতে পাচ্ছেন ধারাবাহিকের নায়ক-নায়িকা একে অন্যকে নির্দোষ প্রমাণ করতেই ব্যস্ত রয়েছে গল্পের মধ্যে আর কোন নতুনত্ব বা চমক নেই। এর পাশাপাশি তারা এও বলছেন যে এই ধারাবাহিক চ্যানেল টপার এবং টিআরপিতে বঙ্গ সেরা হয়েছে শুধু মাত্র কাস্টিংয়ের কারণেই। কিন্তু গল্পের মধ্যে কোন রকম বেস নেই। প্রখ্যাত ব্যবসায়ী হওয়া সত্ত্বেও ঋদ্ধিমান কে কখনো ব্যবসা করতে দেখা যায়না, সে বেশিরভাগ সময় ঘরেই থাকে।

এই মতের অনেকেই বিরোধিতা করেছেন কিন্তু তারাও বলতে পারছেন না যে এই ধারাবাহিকের আসল গল্প টা আসলে কী! এখন দেখা যাক কবে এই ধারাবাহিকের নির্মাতারা বিরক্তিকর এই বিষয়বস্তু থেকে বেরিয়ে ধারাবাহিকের আসল গল্পটা বলে!

Back to top button