বাংলা সিরিয়াল

‘বুদ্ধির জাহাজ বোধিসত্ত্ব’, ছোট্ট বোধির এত বুদ্ধি দেখে খুশি সবাই, বাবা-কাকাকে এক করতে যা খেল দেখালো বোধিসত্ত্ব তাজ্জব দর্শকেরা, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরাও

ছোটবেলা তো সবাই সুকুমার রায়ের ‘বিদ্যে বোঝায় বাবুমশাই’ কবিতাটি পড়েছি। তবে পড়ার থেকে বলা ভালো আত্মস্থ করেছি। তবে সে তো ছিল কাল্পনিক। বাস্তবেও কিন্তু এক বিদ্যেবোঝাই বাবুমশাই রয়েছে যাকে আপনারা অনেকেই জানেন। কথা হচ্ছে বুদ্ধির জাহাজ বোধিসত্ত্ব নিয়ে। জি বাংলার পর্দায় এই ধারাবাহিক দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছে। যদিও তার কেন্দ্রতে রয়েছে বোধিসত্ত্ব নিজে।

জি বাংলার(Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘বোধিসত্বে বোধবুদ্ধি'(Boddhisatwer Bodhbuddhi)। এই গল্পের কাহিনী এক ছোট্ট ছেলেকে নিয়ে। যার মাথায় রয়েছে প্রখর বুদ্ধি। যে তার বুদ্ধি দিয়ে জ্ঞানী মানুষদেরকে পর্যন্ত অবাক করে দেয়। ছোট্ট বোধির চরিত্রে অভিনয় করছেন রায়ান গুহনিয়োগী। তার বয়স মাত্র ৮। কিন্তু বয়স অল্প হলেও তার বুদ্ধি হার মানায় স্কুলের দিদিমণিদের।

প্রত্যেক দিনই কোন না কোন দুঃসাহসিক কান্ড কারখানা ঘটায় সে। যে কারণে প্রায় পাগল পাগল অবস্থা বাড়ির লোক থেকে স্কুলের শিক্ষকদের। তবে এবার সে এমন এক কাণ্ড ঘটিয়ে বসেছে যাতে অবাক হয়ে গিয়েছেন দর্শকেরা। শুরু থেকেই ‘বোধিসত্ত্বের বোধবুদ্ধি'(Boddhisatwer Bodhbuddhi) ধারাবাহিক চর্চায় রয়েছে। যদিও টিআরপি তালিকা যে তেমনভাবে জায়গা করতে পারেনি এই ধারাবাহিক। তবে আর পাঁচটা ছোট ছেলের থেকে বোধি একটু আলাদা।

তাই দর্শকেরা অনেকেই সহজ ভাবে মেনে নিতে পারেনি গল্পটি। একটা ছোট শিশুর মাথায় এত বুদ্ধি কী ভাবে থাকতে পারে? এটা ভেবেই কূলকিনারা পাচ্ছেন না কেউ। তবে তার বুদ্ধি, তার ভদ্র শান্ত ব্যবহারের ভক্ত অনেকে। তবে এবার সে যা কান্ড ঘটিয়েছে তা চোখে পড়ার মতো।

ছোট্ট বোধির শিশু মনে আসা বিভিন্ন বিষয় এবং সেগুলো নিয়ে কৌতুহল ও তার থেকে উত্তর খোঁজা। হাজার বকাঝকার পরেও সে তার এই স্বভাব ছাড়তে পারে না। আর এখানেই বোধিসত্ত্ব সবার থেকে আলাদা। সম্প্রতি নিজেদের ছেলেদেরকে কেন্দ্র করে বোধির পরিবার বিভক্ত হয়ে পড়েছে। তারা একে অপরের জন্য ভীষণ চিন্তিত। তারপরেও রাগ-মান-অভিমান-ঝগড়া ভুলে তারা এগিয়ে আসতে পারছে না।

নিজের পরিবারকে ভাগ হয়ে যেতে দেখতে পারছে না বোধিসত্ত্ব। তাই নিজেই বুদ্ধি খাটিকে সকলকে আবার এক করার পদক্ষেপ নিয়েছে সে। তবে এই কাজে তাকে সাহায্য করবে তার দাদা। বোধি তার কাকার ঘরে গেছে আর বাবুই গেছে জেঠুর ঘরে। দুই ভাই মিলে প্রচেষ্টায় মেতেছে। বাবা এবং কাকাকে এক করতেই হবে। তবে দুই ছোট শিশুর এই প্রচেষ্টাকে দেখে সাধুবাদ জানিয়েছেন দর্শক। এত বুদ্ধি এইটুকু ছেলের মাথায়। প্রশংসা করেছেন সমালোচকরাও।

Back to top button