বাংলা সিরিয়াল

মিঠাইয়ের দেখাদেখি এবার বাচ্চার ট্রেন্ড ধুলোকনায়! তিতিরের সন্তানের বাবা হচ্ছে লালন, ‘ধুলোকণা’ ধারাবাহিকের উপর বেজায় ক্ষেপে দর্শক, আবারও নেটিজেনদের কটাক্ষের শিকার লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায়

বর্তমানে বাংলা ধারাবাহিকে অন্যতম জনপ্রিয় একটি ধারাবাহিক হলো স্টার জলসার লীনা গাঙ্গুলীর লেখা ধারাবাহিক ধূলোকণা। এই ধারাবাহিক শুরুর সময় দর্শকদের পছন্দের তালিকাতে থাকলেও বর্তমানে এ ধারাবাহিক নেটিজেনদের কটাক্ষের মুখে পড়েছে বিশেষ করে ধারাবাহিকের লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায় কে নানান রকম সমালোচনা শিকার হতে হচ্ছে।

প্রতি সপ্তাহতে এই ধারাবাহিক TRP তালিকায় বেশ ভালো ফলাফল করছে। এই ধারাবাহিকের পর শুরু হওয়ার পর বহু নতুন ধারাবাহিক টিআরপি তালিকায় ভালো ফলাফল না করলেও এই ধারাবাহিক ঠিক নিজের জায়গাটা বজায় রেখেছে। প্রতি সপ্তাহতেই নিত্য নতুন টুইস্ট নিয়ে হাজির হচ্ছে এই ধারাবাহিক। তবুও নেটিজেনদের কটাক্ষের হাত থেকে মুক্তি নেই এই ধারাবাহিকের।

ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকের নায়ক লালন কে বহুবার বিয়ের পিঁড়িতে বিভিন্ন নারীর সঙ্গে বসতে দেখা গিয়েছে। যার কারণে এক ধরনের সমালোচনার মুখে পড়েছে এই ধারাবাহিক। লালন কে প্রথম চরুইয়ের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে বিয়ের মন্ডপে বসানো হয়। এরপর চড়ুই এর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় তারপর লালন অবশেষে নিজের ভালোবাসা ফুলঝুরিকে বিয়ে করে। কিন্তু ফুলঝুড়ির সঙ্গে হানিমুনে গিয়ে লালন ভেসে যায় সমুদ্রের সঙ্গে।

তারপর আবার লালনের বিয়ে হয় ডাক্তারবাবুর মেয়ে তিতির এর সঙ্গে। নকল বিয়ে শেষ হওয়ার পর লালনের স্মৃতিশক্তি যখন ফিরে আসে তখন আবার লালন ফুলঝুরির কাছে ফিরে আসে। কিন্তু ফুলঝুড়ির কাছে ফিরে এলো লালনের মন পড়ে থাকে তিতিরের কাছে। তাই সে ফুলঝুরি সঙ্গে সব সম্পর্ক শেষ করে দিয়ে আবারো তিতিরের কাছে ফিরে যায়। আর নায়কের এইভাবে বারবার এক নারী থেকে অন্য নারীর কাছে যাওয়ার গল্প দর্শকদের মোটেই পছন্দ হয়নি। যার ফলে গল্পের লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায় এবং লালন দুজনকে নিয়ে বিভিন্ন ধরনের হাসি ঠাট্টা করছে নেটিজেনরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ধারাবাহিক নিয়ে একটি নিম বানানো হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে ফুলঝুরির সঙ্গে ডিভোর্সের পর কেটে গেছে তিন বছর। লালন তিতিরের সঙ্গে সংসার করছে এবং তিতির লালনের সন্তানের মা হতে চলেছে। আর এই নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়া হাসাহাসি শুরু করেছেন প্রত্যেককে।

Back to top button