বাংলা সিরিয়াল

‘একদিকে বলছে লালন ছেলে! অন্যদিকে ছেলের সাথেই মেয়ের বিয়ে দিতে চাইছে!’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হচ্ছেন ধুলোকণার তিতিরের মা!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো ধুলোকণা। এই ধারাবাহিক বর্তমানে ভীষণ রকম ট্রোলড হচ্ছে- কারণ লালনের মানসিক বিভ্রান্তি। লালন বর্তমানে তিতিরের সাথে থাকতে চাইছে, তাই ফুলঝুরি লালনকে মুক্তি দিয়েছে। সে লালনকে ডিভোর্স দিয়েছে। স্টার জলসা কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি একটি প্রোমো শেয়ার করেছে তাদের ফেসবুক পেজে। সেই ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা রয়েছে,“তিতিরের সাথে লালনের বিয়ে দিয়ে তাদের নিজের কাছে রাখতে চায় তিতিরের মা। কী করবে লালন?”- এই ভিডিও নিয়ে নতুন করে ট্রোল হচ্ছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে,“ তিতিরের মা বলছে-
“লালনকে ঘাড় থেকে নামাতে চাইছে ফুলঝুরি।”
তখন তিতিরের বাবা বাধা দিয়ে বলে- “তুমি একটা মেয়ে হয়ে ফুলঝুরির কষ্ট টা তুমি বুঝতে পারছো না? আজ ফুলঝুরির সাথে যেটা হচ্ছে কাল সেটা তিতিরের সাথে হবে।”

তখন তিতিরের মা বলে যে,“কখনোই হবে না‌। আমার মেয়ের সাথে এমনটা কখনো হবে না। কারণ তিতির গোগোলকে যতোটা ভালোবাসে আর গোগোল তিতিরকে যতটা ভালোবাসে ততটা কেউ কাউকে বাসে না”

এরপর তিতিরের মা তার মৃত ছেলের প্রসঙ্গ তুলে বলে,আমার এক ছেলে কে আমি হারিয়েছি, আর এক মেয়েকে আমি হারাতে চাই না, আমি চাই আমার মেয়ে আমার কাছে থাকুক। লালনকে আমি আমার ছেলের জায়গা দিয়েছি। ওর মধ্যে আমি আমার গোগোলের ছায়া দেখতে পাই।”- ভিডিওটি দেখে নেটিজেনরা বলছেন- তিতিরের কাছে থাকলেই লালন সুস্থ হয়ে থাকবে এমন সুস্থতার দরকার নেই!

একজন নেটিজেন যেমন লিখেছেন,“ মেয়ের থেকে মা কে দেখলে বেশি রাগ হয় ,অসভ্য মহিলা ।একদিকে বলছে লালন কে নাকি মিজের ছেলের জায়গায় বসিয়েছে আর ও দিকে নিজের মেয়ের সাথে বিয়ে দিতে চাইছে অদ্ভুত মানসিকতা!”

Back to top button