বাংলা সিরিয়াল

‘ফ্রিজে যে জুতো ও রাখে সেটা জি বাংলার সিরিয়াল না দেখলে জানতেই পারতাম না’-সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল নিম ফুলের মধুর এপিসোড!

আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার চক্করে পড়ে কিছু কিছু জিনিস ভীষণভাবে ট্রোল হয়। যা সাধারণ তা ব্যতিক্রম কিছু থাকলে বা ব্যতিক্রম কিছু দেখলে মানুষ একটু হাসাহাসি করেন সমালোচনা করেন তা নতুন কিছু নয়, আবার যদি বাংলা ধারাবাহিকের কথা বলা যায় সে ক্ষেত্রে একটি কথাই মাথায় আসে, তাহলে গল্পের গরু গাছে ওঠে।

যে কোনো ধারাবাহিক যে বিষয় নিয়ে শুরু হয় ধারাবাহিকের শেষে গিয়ে দেখা যায় সেই ধারাবাহিকের মূল বিষয়বস্তু আর নেই। ধারাবাহিকের মূল বিষয়বস্তু ঘেঁটে ঘ হয়ে গেছে, ধারাবাহিকের গল্পের খেই হারিয়ে গেছে। সম্প্রতি জি বাংলায় শুরু হয়েছে একটি নতুন ধারাবাহিক এই ধারাবাহিকটির নাম নিম ফুলের মধু।

এই ধারাবাহিক একটি নতুন জুটিকে দেখা যাচ্ছে পল্লবী আর রুবেলকে। পল্লবীকে এর আগে ‘কে আপন কে পর’ ধারাবাহিকে দেখা গেছে আর রুবেলকে দেখা গিয়েছে যমুনা ঢাকি ধারাবাহিক এবং বাঘ বন্দী খেলা ধারাবাহিকে। এই ধারাবাহিকে পর্ণা ও সৃজনের গল্প দেখানো হচ্ছে।

ধারাবাহিকের মূল থিম হলো- বিয়ের প্রথম বছর নিম ফুলের মধু, তেতুটুকু পেরোলে তবেই মিঠের আস্বাদ পাওয়া যায়। এই ধারাবাহিকে দেখা যায় যে, পর্না যৌথ পরিবারে বিয়ে করতে চায় অন্যদিকে সৃজনদের যৌথ পরিবার, কিন্তু পর্নার মা চায় পর্না বিদেশে কাউকে বিয়ে করে সেটল হোক।- ইতিমধ্যেই সৃজনের ঠাকুমা গঙ্গার ঘাটে পরে গেলে পর্না নিজের জীবন বাজি রেখে তাকে বাঁচায় এবং এই ভাবেই দুটো পরিবারের মধ্যে যোগাযোগ হয় এবং সৃজনের ঠাকুমা চায় পর্ণাকে তার বাড়ির বউ করে আনতে।

এই ধারাবাহিকে সম্প্রতি একটি ঘটনা ঘটেছে যা নিয়ে ভীষণভাবে ট্রোল এবং সমালোচনা করা হচ্ছে তা হলো এই ধারাবাহিকের একটি এপিসোডে দেখা গেছে যে, সৃজন বাইরে বেরোনোর সময় তার জুতো বার করছে কিন্তু জুতো রাখার কোন তাক নেই।

ফ্রিজ খুলে সে তার জুতো বার করছে যা নিয়ে প্রবল সমালোচনা হয়েছে এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় চরম হাসাহাসি হচ্ছে, সবাই বিষয়টা নিয়ে ট্রোল করছেন।একজন নেটিজেন যেমন বলেছেন, “ফ্রিজে যে জুতো ও রাখে সেটা জি বাংলার সিরিয়াল না দেখলে জানতেই পারতাম না”

Back to top button