বাংলা সিরিয়াল

দুজনের সম্পর্কে রয়েছে অদ্ভুত রকমের বিশ্বাস, ১২ বছরের সম্পর্কে একবারও কেউ কারোর ফোনে হাত দেননি রাজা এবং মধুবনী

দেখতে দেখতে গোটা একটা দশক পেরিয়ে গেলো স্টার জলসার একসময়ের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ভালোবাসা ডট কম এর। এই ধারাবাহিকের হাত ধরেই একে অপরের প্রেমে পড়েছিলেন রাজা মধুবনী। তারপর থেকেই শুরু হয়েছিল দুজনের পথ চলা। বর্তমানে দুজনের সুখের সংসার। পরিবারে এসেছে নতুন সদস্য। মা হওয়ার পর মধুবনী কাজের পরিমাণ কমিয়ে দিলেও রাজা কাজ করে চলেছেন। মধুবনী সংসার, সন্তান এবং নিজের ইউটিউব চ্যানেল নিয়েই ব্যস্ত থাকেন।

দুজনের খুবই সাধাসিধে জীবন। নেটিজেনরাই বলেন যে তারা দুজন সেলিব্রিটি হয়েও তাদের মধ্যে সেই অহংকারের ছাপ নেই। আর দুজনের সম্পর্ক এতোটাই সুন্দর যে নতুন করে আর কিছুই বলার নেই। রাজাও একাধিকবার বলেছেন যে মধুবনি এবং তার সম্পর্কে আলাদা রকমেরই বোঝাপড়া আছে। গত ১২ বছরে একবারও নাকি দুজন দুজনের ফোন ঘেঁটে দেখেননি।

সম্প্রতি কিছুদিন আগেই শেষ হয়েছে জনপ্রিয় ধারাবাহিক খড়কুটো। সেখানে কমেডি চরিত্রে দেখা গিয়েছিল রাজা কে। এই প্রথম রাজা কোনো কমেডি চরিত্রে অভিনয় করেছেন। আর অভিনয় করতে গিয়ে ধারাবাহিকের পটকা ওরফে অম্বরীশ ভট্টাচার্য খুব সাহায্য করেছেন রাজা কে, সেটাও জানান অভিনেতা। এত ধারাবাহিকে অভিনয় করেও খড়কুটো তে তার অভিজ্ঞতা অনেক বেশি। নিজের চরিত্র রুপাঞ্জন সম্পর্কে রাজা জানিয়েছেন রূপাঞ্জন চরিত্রটি খুবই স্বল্প সময়ের জন্য ভাবা হয়েছিল। রূপাঞ্জনের সঙ্গে বিয়ে করে চিনি বাইরে চলে যাবে। এই পর্যন্তই ছিল চরিত্রটি। কিন্তু রূপাঞ্জন থেকে গেলেন শেষদিন পর্যন্ত। রাজা আরও বলেন রূপাঞ্জন চরিত্রটি সবারই খুব ভাল লেগেছে।

অবশেষে শেষ হলো দু বছরের যাত্রা। আপাতত ছেলে কেশব আর নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলের দিকে একটু সময় দিতে চান রাজা। বড়পর্দা এবং ডিজিটাল মাধ্যম থেকে বেশ কিছু কাজের প্রস্তাব এসেছিল তাঁর কাছে, কিন্তু রাজি হননি তিনি। তবে ভাল কাজ পেলে যেকোনো মাধ্যমেই তিনি কাজ করতে রাজি।

Back to top button