বাংলা সিরিয়ালবিনোদন

“মিশকা থাকতে এটার কী প্রয়োজন সূর্য?” – গলায় জড়ানো বিশাল বড় পাইথন! সাপের গালে চুমু খেতেই বিদ্রুপ নেটিজেনদের

বাংলার প্রবাদ আছে “সাপের গালেও চুমু আর ব্যাঙের গালেও চুমু”। মূলত কথাটি ব্যবহার করা হয় ব্যঙ্গ বিদ্রুপ করার জন্যই। তবে দেখা গেলো অভিনেতা দিব্যজ্যোতি দত্ত চুমু খাচ্ছেন সাপের গালে। আবার সেটা কোনো সাধারণ সাপ টাপ নয়। একেবারে ইয়া বড় পাইথন। আর সেই পাইথনকেই নাকি চুম্বন করছেন অভিনেতা।

অনেকগুলি প্যাঁচ দিয়ে একেবারে গলা জড়িয়ে ধরে আছে সেই পাইথনটি। অভিনেতা দুহাত দিয়ে ধরেও কুলিয়ে উঠতে পারছেন না। এতটাই বড় আর ভারি যে অভিনেতা কোন রকমে ধরে রেখেছিলেন তাকে। তারপরেও ভয়ের নাম মাত্র নেই অভিনেতার। দিব্যি হাসিমুখে পাইথনের শরীরের মসৃণ খোলসের মধ্যে চুম্বন করছেন দিব্যজ্যোতি। অভিনেতাকে দেখি কোনোভাবেই বোঝা সম্ভব নয় যে তিনি একটি অত বড় সাইজের পাইথন ধরে রেখেছেন। দেখে মনে হচ্ছে একদম একটা সাধারন পোষ্য রয়েছে তাঁর কাছে।

পাইথনের সাথে নিজের ভিডিও শেয়ার করে অভিনেতা ক্যাপশনে লিখেছেন, “সবথেকে সুন্দর এবং নিরীহ পাইথন”। তবে অভিনেতার এই ভিডিওতে কটাক্ষের ঝড় কমেন্ট সেকশনে। একজন লিখেছেন, “খতরো কে খিলাড়িতে চলে যাও”। আবার কেউ মজা করে লিখেছেন, “মিশকা থাকতে এটার কী প্রয়োজন সূর্য?” আরেকজন জনৈক আবার অভিনেতাকে ব্ল্যাক মাম্বা নিয়ে ছবি তোলার কথা অনুরোধ করেছেন।

আসলে এই মুহূর্তে অভিনেতা পরিবারের সাথে আনন্দে সময় কাটাচ্ছেন। এখন ব্যাংককে রয়েছেন দিব্যজ্যোতি। পুজোর ছুটি পেয়েই সপরিবারে থাইল্যান্ডে বেরিয়ে আসছেন অভিনেতা। সেখান থেকেই একাধিক ছবি ও ভিডিও পোস্ট করছেন অভিনেতা। কখনো নীল জলরাশির সামনে দাঁড়িয়ে পোস্ট দিয়ে ছবি। তো আবার কখনো সাফারি পার্কে ফ্যামিলি পিকচার। তো আবার কখনো বিশাল পাইথনকে গলায় জড়িয়ে ভিডিও।

প্রসঙ্গত জয়ী ধারাবাহিকের হাত ধরে ধারাবাহিক জগতে পদার্পণ করেছেন অভিনেতা দিব্যজ্যোতি দত্ত। সেই ধারাবাহিকে অভিনেতার অভিনয় বেশ পছন্দ করেছিলেন দর্শক। তারপর দেশের মাটি ধারাবাহিকে দেখতে পাওয়া যায় দিব্যজ্যোতি কে। তবে টিআরপি কম হওয়ার কারণে অল্প কয়েক দিনের মধ্যেই বন্ধ করে দেওয়া হয় এই ধারাবাহিক। তারপরে এখন অভিনেতাকে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে স্টার জলসার অনুরাগের ছোঁয়া ধারাবাহিকে। এই ধারাবাহিককে অভিনেতা স্বস্তিকা ঘোষ এর বিপরীতে নায়ক সূর্যের চরিত্রে অভিনয় করছেন দিব্যজ্যোতি। এই ধারাবাহিকে অভিনেতাকে বেশ ভালই পছন্দ করছেন দর্শক মহল।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Dibyojyoti Dutta (@dibyojyoti_dutta_)

Back to top button