বাংলা সিরিয়াল

‘আহারে সুন্দর চাঁদপানা মুখটার কি হালই না হয়েছে,’ সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ওমি আগারওয়াল এর ভিখারী দশার ছবি নিয়ে শুরু হয়েছে ট্রোল হাসাহাসি

বর্তমানে ধারাবাহিক হলো মানুষের নিত্য জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ধারাবাহিক গুলির চাহিদা অনুযায়ী চ্যানেলগুলিতে ধারাবাহিকের সংখ্যাও দিন দিন বাড়ছে। আর এই ধারাবাহিক গুলির মধ্যে সব দর্শকদেরই একটি পছন্দের ধারাবাহিক হলো জি বাংলার ‘মিঠাই’ ধারাবাহিক। এই ধারাবাহিক ভালোবাসে না এমন মানুষ হয়তো খুব কম পাওয়া যাবে। মাঝে হয়তো একটুখানি ট্র্যাক থেকে সরে গিয়েছিল মিঠাই। কিন্তু আবারো ধারাবাহিকে জমজমাট গল্প এবং টুইস্ট নিয়ে দর্শকের মন জয় করে নিতে সক্ষম হয়েছে।

বর্তমানে ধারাবাহিককে দেখানো হচ্ছে ওমি আগারওয়ালের গুলি খেয়ে মিঠাই এখন অসুস্থ। যদিও কোমা থেকে সিদ্ধার্থ মিঠাই কে নিজের চেষ্টা দিয়ে বাঁচিয়ে ফিরিয়ে এনেছে। তাই মিঠাই এখন অনেকটাই সুস্থ বাড়ি ফিরেছে সে। মনোহরাতে ফিরেই সকলের আদর যত্নে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছে সে। তাই এই জমজমাট পর্বের জন্য মিঠাই বর্তমানে দুই সপ্তাহ ধরেই বেঙ্গল টপার। আবারো নিজের প্রথম স্থান বাকিদের থেকে ছিনিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছে এই ধারাবাহিক। তাই এই সপ্তাহতেও সকলকে পেছনে ফেলে মিঠাই বেঙ্গল টপার।

এরই মধ্যে আবার দেখানো হয়েছে ওমি আগারওয়াল কে এখনো পুলিশ খুঁজে পাইনি, ছদ্মবেশে মনোহরার আশেপাশেই ঘুরে বেড়াচ্ছে ওমি। ভিখারীর ছদ্মবেশ নিয়ে এমনভাবে লুকিয়ে রয়েছে সে তাকে দেখে সত্যিই চেনা সাধ্য নেই এমনকি পুলিশ অফিসার রুদ্রর চোখেও ধুলো দিতে সফল হয়েছে ওমি। উল্টে ওমিকে সত্যিকারের ভিখারী ভেবে সিদ্ধান্ত ৫০০ টাকা দান করে এসেছে। এদিকে ওমির এই রূপ দেখে সোশ্যাল মিডিয়া তাকে নিয়ে শুরু হয়েছে হাসাহাসি।

সোশ্যাল মিডিয়া একজন ওমির ছবি পোস্ট করে লিখেছে “আহারে সুন্দর চাঁদ পানা মুখটার কি অবস্থা, একেবারে আহাটের আত্মার মত লাগছে।” তবে পুরো ব্যাপারটাই মজার ছলে করা হয়েছে। বর্তমানে অবশ্য ওমি যে চিনতে পেরেছি সিদ্ধার্থ। তাই রুদ্রকে পাঠিয়ে ওমি কে ধরার জন্য পুলিশ ফোর্স পাঠিয়েছিল। কিন্তু কোন লাভ হয়নি। ওমি কে সামনে থেকে দেখে রুদ্র নিজেই চিনতে পারেনি। তাই এবারে শুধুই অপেক্ষা যে কবে পুলিশ ওমিকে ধরতে পারে।

Back to top button