বাংলা সিরিয়াল

বিয়ের দিন সকলের সামনে ফুলঝুরির মনের কথা বলে ফেলল মিনি! তবে মিনিই কি অনুঘটক হয়ে যাবে লালন ফুলঝুরির বিয়ের?

কিছুদিন আগেই স্টার জলসার ‘ধুলোকণা’ ধারাবাহিকের সাম্প্রতিককালের একটি প্রোমো সোশ্যাল মিডিয়া ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে যে অন্য কারো সাথে নয় লালনের সাথেই ফুলঝুরির বিয়ে হবে। যদিও এই সবটা সম্পর্কে লালন বা ফুলঝুরির কারোরই কোনো ধারণা নেই। লালন জানে সে না জেনে হলেও চড়ুইয়ের সিঁথিতে সিঁদুর দিয়েছে, অন্যদিকে ফুলঝুরি মনে করে লালন বিবাহিত, তাই লালনের সাথে তার নাম জড়ানো চলে না। তাই অনিচ্ছা সত্ত্বেও অন্য একজনের সাথে বিয়েতে রাজি হয়েছে ফুলঝুরি, যদিও মনে মনে সে এখনো লালন কেই ভালোবাসে।

তাইতো লালন অসুস্থ জেনে নিজের বিয়ের আগের দিন লালনকে দেখতে লালনের বস্তিতে ছোটে। সেখানে লালনের বাবা তাকে অনেক কথা শোনায় কিন্তু তবুও শুধুমাত্র লালনকে দেখবার জন্য‌ই সে যে সেখানে গিয়েছিল তা সে খুব ভাল করেই জানে। লালন তাকে ফিরিয়ে দেয় এই বলে যে একদিন পরেই তার বিয়ে লোক জানাজানি হলে বিষয়টা খারাপ হবে। অন্যদিকে সাম্প্রতিককালের প্রোমো বলছে বিয়ের মঞ্চেই ঘটবে আসল টুইস্ট! জানা যাবে বিয়েটা আসলে লালন ফুলঝুরির। ফুলঝুরির হবু বর জানাবে তার সাথে নয় লালনের সাথেই বিয়ে হবে ফুলঝুরির, এমনকি পুরো বিষয়টিতে চড়ুই কিছু করতে পারবে না বলেও সে জানায়! কীভাবে মীল হবে লালন ফুলঝুরির তা জানতে সকলে যখন উদগ্রীব হয়ে আছেন তখন সম্প্রতি আরেকটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

এটি ফুলঝুরির বিয়ের দিনের সকালের ভিডিও। যেখানে দেখা যাচ্ছে গায়ে হলুদের জন্য হলুদ রংয়ের শাড়ি পড়ে দাঁড়িয়ে আছে সে। কিন্তু তার মুখে একটুও হাসি নেই, তার মনের কথা সে কাউকে বলতে পারছে না। ঠিক এই সময় ফুলঝুরির মনের কথায় যেন বলে দিলো মিনি! সকলের সামনে বলে দিলো মিনি, এই যে ফুলঝুরির এত ভালো জায়গায় বিয়ে হচ্ছে তবু তার মুখে এতোটুকু হাসি নেই। হাসি থাকবে কী করে সে তো লালনকে ভালোবাসে, সেই কারণেই তার মুখে হাসি নেই! একই সাথে মিনি এও বলে যে বিয়ের দিন যদি ফুলঝুরির জায়গায় চড়ুই না বসতো তাহলে এতদিনে ফুলঝুরি লালনের বিয়েটা হয়ে যেত! এইসব কথা শুনে ফুলঝুরি বলে, সোনা দিদি তুমি যদি চুপ না কর আমি কিন্তু ঘরে চলে যাব। আসলে বোঝাই যায় সকলের সামনে বিষয়টা ধামাচাপা দিতে চাইছে সে যদিও তার মনের মধ্যে এই কথাগুলি ঘুরছে!

Back to top button