বাংলা সিরিয়াল

‘রাক্ষস বরের সুন্দরী বউ!’ দিদি নাম্বার ওয়ানের মঞ্চে দাঁড়িয়ে অভিনেতা সুমিত কে রাক্ষস বললেন সঞ্চালিকা রচনা ব্যানার্জি, কি এমন হলো হঠাৎ?

বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো গুলির মধ্যে অন্যতম একটি হলো জি বাংলার দিদি নাম্বার ওয়ান। বিগত ১০ বছর ধরে এই শো টেলিভিশনের পর্দায় সগৌরবে চলে আসছে। শো এর সঞ্চালিকার দায়িত্বে রচনা ব্যানার্জি র কথা তো আলাদা করে আর কিছু বলারই অপেক্ষা রাখে না। অভিনেত্রীর অসাধারণ সঞ্চালনায় এই শো দিনে দিনে আরো জমজমাট হয়ে উঠেছে। এই শো তে প্রতিদিনই সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সেলিব্রেটিরা এসে থাকেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় মাঝে মধ্যেই দিদি নাম্বার ওয়ানের বিভিন্ন ভিডিও ভাইরাল হয়ে পরে। সম্প্রতি সেরকমই একটি ভিডিও দারুন ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায় যে দিদি নাম্বার ওয়ান এর সেই পড়বে উপস্থিত হয়েছেন টলিউড ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় এবং অত্যন্ত পরিচিত ভিলেন সুমিত গাঙ্গুলী এবং তার স্ত্রী।

১৯৯৩ সালে তোমার রক্তে আমার সোহাগ ছবির হাত ধরে ইন্ডাস্ট্রিতে আত্মপ্রকাশ হয় সুমিতের। এরপর একের পর এক হিট ছবিতে ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে অভিনেতা কে। তাকে ভিলেন চরিত্রে দেখে সেইসময় সকলেরই বুক কাঁপত। তবে দিদি নাম্বার ওয়ানের ভরা মঞ্চে দাঁড়িয়ে সুমিত কে রাক্ষস বলে সম্বোধন করলেন রচনা ব্যানার্জি কিন্তু হঠাৎ কেন এই সম্বোধন করলেন অভিনেত্রী? আসলে অভিনেতার এই ভয়াবহ চেহারা দেখে রচনা ব্যানার্জি মজার ছলে এই সম্বোধন করেছেন তাকে।

আর এর উত্তরের সুমিত জানান এই চেহারা দেখে ইন্ডাস্ট্রি থেকে কাজের ডাক পাই। এই চেহারা দিয়েই আমার রোজগার হয়। আর আমার স্ত্রীও এই চেহারায় খুশি। সুমিতের স্ত্রী জানান সুমিতের নাকি খুব রাগ। নাটক করতে গিয়েই দুজনের আলাপ হয়। তারপর শুরু তাদের প্রেম। প্রথমে পরিবার থেকে বিয়ের জন্য রাজি না হয়ে স্ত্রী কে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করেন সুমিত। বর্তমানে স্ত্রী, কন্যা নিয়ে তার সুখের সংসার। মেয়েও নাকি বাবার মতনই রাগী। মেয়ের কাছেই জব্দ সুমিত।

Back to top button