বাংলা সিরিয়াল

রিল লাইফ ছাড়িয়ে রিয়েল লাইফেও জুটি বেঁধেছেন যমুনা সঙ্গীত! শ্বেতা রুবেলের ১৫ বছরের বন্ধুত্বে সিলমোহর দিতে চলেছেন শ্বেতা রুবেল!

জি বাংলায় সদ্য শেষ হওয়া ধারাবাহিক যমুনা ঢাকি। এই ধারাবাহিকে যমুনা চরিত্র করে জনপ্রিয়তা লাভ করেছিলেন শ্বেতা ভট্টাচার্য। তবে এর আগেও ‘তুমি রবে নীরবে’ জড়োয়ার ঝুমকো ইত্যাদি ধারাবাহিকে অভিনয় করে নিজের অভিনয় দক্ষতা ফুটিয়ে তুলেছিলেন তিনি। ধারাবাহিক শেষ হওয়ার সাথে সাথে দেবের বিপরীতে প্রজাপতি ছবিতে অভিনয় করেছেন শ্বেতা। বড় পর্দার এই কাজ শেষ হওয়ার সাথে সাথেই আবার শোনা যাচ্ছে টেলিভিশনের ছোট পর্দায় ফেরত আসবেন অভিনেত্রী। খুব সম্ভবত গ্রামের রানী বীণাপাণীর নায়ক হানি বাফনার সাথে জুটি বাঁধবেন তিনি। এ তো গেল রিল লাইফের কথা এবার আসি শ্বেতার রিয়েল লাইফের কথায়, রিয়েল লাইফে শ্বেতার হিরো কে?

‘যমুনা ঢাকি’ ধারাবাহিকে শ্বেতার বিপরীতে অভিনয় করতো যে চরিত্রটি তার নাম সঙ্গীত। এই সঙ্গীত চরিত্রটি করতেন জনপ্রিয় অভিনেতা রুবেল দাস। শোনা যাচ্ছে বাস্তবে রুবেলের সাথেই প্রেম করছেন তিনি।

২১ শে‌ সেপ্টেম্বর শ্বেতার জন্মদিন ছিল। এই দিন দুজনের সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে আসে এই দিন রুবেল গেছিলেন সে তার বাড়িতে। পরিবারের সবার সাথে ছবি তোলেন অভিনেতা, সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে শ্বেতা ক্যাপশনে লেখেন ‘ফ্যামিলি’। এই লেখা দেখেই চর্চা শুরু হয়ে যায়। তবে কি নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছেন তারা?

এর আগে রুবেল এবং শ্বেতা দুজনেই একটি সম্পর্কে ছিলেন‌। এই সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া প্রসঙ্গে শ্বেতা বলেন, “কারণ সেই সম্পর্কে আমরা দুজনেই ভালো ছিলাম না। তাই বেরিয়ে এসেছি”

শ্বেতা এবং রুবেল একে অপরকে ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে তাদের চেনাজানা। নাচ শেখার সময় থেকে তাদের পরিচয়ের সূত্রপাত। যমুনা ঢাকিতে কাজ করার সময় থেকেই তাদের সম্পর্ক গাঢ় হয় এরপর রুবেল প্রপোজ করেন শ্বেতাকে। ২ পরিবারের মধ্যেও সম্পর্ক ঘনিষ্ট হয়েছে। এই সম্পর্ক প্রসঙ্গে শ্বেতা বলেছেন,“রুবেল আমার কাছের মানুষ। আমার প্রতিটি পছন্দকে মূল্য দেয় ও আমার পরিবারের সঙ্গে সুন্দরভাবে মিশে গিয়েছে কিন্তু আমরা এখনই এই সম্পর্কে কোন সীলমোহর দিতে চাইছি না।

অন্যদিকে রুবেল বলেছেন,“ আমরা পরস্পরের সঙ্গ উপভোগ করি। শ্বেতাকে আমার পরিবারের সকলেই পছন্দ করে। পুজোয় ও আমার বাড়িতে আসবে। যেদিন সম্পর্ক নিয়ে আমরা দুজনে নিশ্চিত হবো সেই দিন সকলকে জানিয়ে দেবো।”

Back to top button