বাংলা সিরিয়াল

‘এই মেয়েটা সবাই কে ছোট না করে কথা বললে পেটের ভাত হজম হয় না’! শ্রুতি দাস কে নিয়ে যারা চর্চা করেন তারা জন্নাত পাক! অভিনেত্রীর মন্তব্য সামনে আসতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড়

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ত্রিনয়নী করে জনপ্রিয়তা লাভ করেছিলেন শ্রুতি দাস। মুখ্য চরিত্রে তার অভিনয় রীতিমতো অসাধারণ ছিল। এরপর তিনি দেশের মাটি ধারাবাহিকে অভিনয় করেন।‌ এই ধারাবাহিকে নোয়ার চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি, তবে এই ধারাবাহিকে প্রথম দিকে নোয়া কিয়ানকে মুখ্য হিরো হিরোইন হিসেবে গুরুত্ব দেওয়া হলেও দর্শকরা এই দুই চরিত্রের তুলনায় সাইড চরিত্র রাজা ও মাম্পি অর্থাৎ রাহুল রুকমার প্রতি অধিক মাত্রায় আকৃষ্ট হয়ে পড়েন এরপর ধারাবাহিকে রাজা মাম্পিকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হতে শুরু করে।

এরপর দেশের মাটি ধারাবাহিক শেষ হয় এবং এই ধারাবাহিকের সাইডে কাজ করা বিভিন্ন জুটি যেমন রাজা মাম্পি চরিত্রের অভিনেতা অভিনেত্রী আবার ডোডো উজ্জয়িনী চরিত্রের অভিনেতা অভিনেত্রীরা বিভিন্ন ধারাবাহিকে কাজ শুরু করলেও এক বছর ধরে শ্রুতি দাস কে কোন কাজে দেখা যাচ্ছে না কারণ শ্রুতি দাস মনের মত কাজ পাচ্ছেন না। তবে সম্প্রতি কালার্স বাংলার মহালয়ার প্রোমো তে তাকে কালীর রূপে দেখা গেছে।

শ্রুতি দাস কাজের জগতে না ফিরলেও সোশ্যাল মিডিয়া বিভিন্ন পোস্ট এবং স্পষ্টবাদী কথাবার্তার জন্য প্রায়ই হাইলাইটেট হয়ে যান। সম্প্রতি যেমন দেখা যাচ্ছে যে তাকে নিয়ে একটি পোস্ট হয়েছে একটি গ্রুপে। একজন তার পোস্টে কমেন্ট করে লিখেছেন তাকে নিয়ে একটি গ্রুপে অনেক বাজে কথা বলা হয়। ‌ এরপর দেখা যায় শ্রুতি দাস তাকে মেনশন করে লেখেন, ‘জন্নত পাক তারা ’।

এরপর শ্রুতি দাসের একজন ফ্যান লিখেছেন, রাজার পিছনেই চর্চা হয় কখনো শুনেছো সাধারণ মানুষ বা প্রজার পিছনে চর্চা হতে?

এই পোস্ট কে ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন ব্যক্তি আবার পোস্ট করেছেন যে, “বাকি অভিনেত্রী রা সাধারণ মানুষ আর প্রজা।তা দিদি আপনি কোন সা রাজ্যের রাজকন্যা একটু বলুন তো।মানে এই মেয়েটা সবাই কে ছোট না করে কথা বললে পেটের ভাত হজম হয় না। পেয়েছে কয়েকটা ফ্যান ওর মতোই সিক মেন্টালিটির।”

Back to top button