বাংলা সিরিয়াল

অনুজের মতোই লালন চরিত্রের অবনতি দেখাচ্ছেন লেখিকা! ফুলঝুরিকে রেখে তিতিরের কাছে গিয়ে নিজের মন খারাপের কথা বলছে লালন!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ধুলোকণা।এই ধারাবাহিকে কিছুদিন আগেই দেখানো হয়েছে যে স্মৃতি ভ্রষ্ট লালনের স্মৃতি ফিরে এসেছে। স্মৃতি ফিরে আসার পর সে স্বাভাবিক ভাবেই তার স্ত্রীর কাছে ফুলঝুরির কাছে এবং পরিবারের কাছে ফিরে যেতে চেয়েছে, এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে যখন মনে হয়েছে তিতির চরিত্র টি চূড়ান্ত নেগেটিভ তখন দেখানো হয়েছে তিতিরকে পজেটিভ করে। তিতির লালন ও ফুলঝুরির মিল করিয়ে দিয়েছে।

এমন কি সে বলেছে সে কোনদিনই লালন কে বিয়ে করেনি, লালন কে যাতে বিয়ে করতে না হয় সেই কারণেই সে লিপস্টিক দিয়ে সিঁদুর দান করতে বলেছিল। কারণ সিঁদুর দান ই মেন আর লিপস্টিক দিলে কখনোই বিয়ে হয়ে যায় না। এরপর সকলকে অবাক করে সে জানিয়েছে যে সে, ফুলঝুরিকে দিয়ে কোন ডিভোর্সের পেপারে সাইন করায়নি বরং সে এমন একটি পেপারে সাইন করিয়েছে যেখানে লেখা আছে যে, লালন কে নিয়ে সে একটি এক্সপেরিমেন্ট করবে কিন্তু লালন সুস্থ হয়ে গেলে তার পরিবারের কাছেই ফিরে যাবে।

এরপরই দেখাচ্ছে লালন ফুলঝুরি বাড়ি ফিরে গেছে। কিন্তু লালন চরিত্রের এবার অবনতি দেখানো শুরু হয়েছে। একজন নেটিজেন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, “ চুরুই এর বিয়ের অনুষ্ঠানও শুরু হয়ে গেলো আজ থেকে, এত ভালো কিছুর মধ্যে হটাৎ লালনের চরিত্রের একি অবনতি ছিঃ, অনুজ এর মত যদি লালন চরিত্র টাকেও নষ্ট করে তো বলবো লীনা ম্যামের মাথায় প্রবলেম আছে, Sorry ‘ধুলোকণা’ ”

ঠিক কী দেখানো হচ্ছে ধুলোকণায়? এই ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে যে, চড়ুইয়ের বিয়েতে ব্যস্ত আছে ফুলঝুরি আর এইসময় লালন চলে গেছে তিতিরের কাছে। সেখানে গিয়ে সে বলছে – ফুলঝুরি ব্যস্ত তাই তার দিকে তাকানোর তার সময় নেই। আর বলছে ,আমি চলে গেছি তোমার খারাপ লাগেনা?- দর্শকদের একাংশ মনে করছেন অনুজের মতোই লালন চরিত্রটির অবনমন দেখাবেন লেখিকা।

Back to top button