বাংলা সিরিয়াল

মিডিয়ার সামনে খড়িকে নিজের স্ত্রী হিসেবে স্বীকার করলো ঋদ্ধি, মিডিয়ার সামনে ঋদ্ধির আসল চেহারা নিয়ে আসার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলো খড়ি

বর্তমানে বিনোদন জগতের অন্যতম অংশ হলো ধারাবাহিক। এই ধারাবাহিক গুলি এখন আমাদের দর্শকদের নিত্যদিনের জীবনের অংশ হয়ে উঠেছে। সন্ধ্যে হলেই জি বাংলা থেকে স্টার জলসা সমস্ত চ্যানেলের ধারাবাহিক গুলি নিয়ে বসে পড়েন মা কাকিমারা। একটা ধারাবাহিক একেক রকম স্বাদের বলেই দর্শক রা প্রতিটি ধারাবাহিক দেখতেই বেশি ভালোবাসেন। সেরকমই একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক হল স্টার জলসার নতুন ধারাবাহিক ‘গাঁটছড়া’। এই ধারাবাহিকের মাধ্যমে অভিনেত্রী সোলাঙ্কি রায় এবং অভিনেতা গৌরব চ্যাটার্জী প্রথমবারের জন্য অনস্ক্রিন জুটি বাঁধছেন। মাত্র অল্প কয়েক দিন হল এই নতুন ধারাবাহিক শুরু হয়েছে স্টার জলসার পর্দায়। কিন্তু ইতিমধ্যেই দর্শকের মনে বেশ ভালো জায়গা করে নিয়েছে এই ধারাবাহিক, সেটা টিআরপি তালিকায় রেটিং দেখলেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।

টিআরপি তালিকায় পরিবর্তন এলেও এই ধারাবাহিক নিয়ে কটাক্ষ হয়েছে একাধিকবার। দর্শকদের এই গল্পের কিছু কিছু অংশ একেবারেই মন মত হয়না যা নিয়ে ট্রল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। এমনকি ধারাবাহিকের গল্প দেখে অনেক দর্শক বলেছেন যে এই ধারাবাহিক জি বাংলার বকুল কথা ধারাবাহিক হুবহু নকল করছে।

এই ধারাবাহিকের নিত্য দর্শক যারা তারা জানেন যে আভিজাত্য পরিবারের বড় ব্যবসায়ী ঋদ্ধিমান সিংহ রায় সঙ্গে নানান ঘটনাচক্রে মাধ্যমে এক নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে খড়ি ভট্টাচার্যের বিয়ে হয়। যেখানে তার বড়দিদি দ্যুতির ভট্টাচার্যের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিয়ের দিনে দ্যুতি বিয়ের মণ্ডপ ছেড়ে পালিয়ে যায়। যার ফলে খড়ি সঙ্গে বিয়ে করতে বাধ্য হয় ঋদ্ধিমান। অন্যদিকে খড়ির সঙ্গে ঋদ্ধিমান এর সম্পর্ক একেবারে আদায়-কাঁচকলায়। দুজন দুজনকে মোটেই সহ্য করতে পারে না। যার কারণে দ্যুতির সঙ্গে বিয়ে না হওয়ার সমস্ত রাগ ক্ষোভ গিয়ে পড়েছে খড়ির উপরের। পরিবারের অধিকাংশ মানুষকে এখনো মেনে নিতে পারেনি খড়িকে সেই বাড়ির বউ হিসেবে।

বর্তমানে ধারাবাহিকে ঋদ্ধিমান এবং খড়ির বৌভাতের পর্ব দেখানো হচ্ছে। যেখানে বহু প্রেস মিডিয়ার সামনে ঋদ্ধিমান একেবারে স্বাভাবিক ব্যবহার করছেন যেন পরিবারের সকলেই খড়িকে খুব ভালো মনে ঐ বাড়ির বউ হিসেবে মেনে নিয়েছে। কিন্তু ওর এই রূপ দেখে অবাক হয়ে খড়ি তাকে হুমকি দেয় যে সে চাইলেই প্রেসের সামনে ঋদ্ধিমানের আসল চেহারা টেনে খুলে দিতে পারে। কিন্তু শেষমেশ খড়ি তা করেনি। এই সমস্ত পর্ব গুলি দেখে একাধিক দর্শকরা দাবি জানিয়েছেন ঋদ্ধিমান কি এরকম ভিলেনের চরিত্রে দেখতে তারা মোটেই পছন্দ করছেন না। ধারাবাহিকের গল্পে বদলানো দরকার বলেই তাদের দাবি।

Back to top button