বাংলা সিরিয়াল

মনে মনে আহিরের সঙ্গে বিয়ে মেনে নিয়েছে পিলু, আহির বলা সত্বেও মুছবে না মাথার সিঁদুর, ‘পিলু’ ধারাবাহিকে এলো নতুন টুইস্ট

বিনোদন জগতের আরেকটি বড় অংশ হলো ধারাবাহিক। দর্শকেরা প্রতিদিনই নিজেদের পছন্দের ধারাবাহিকগুলো দেখতে টেলিভিশনের পর্দার সামনে হাজির হন। সেরকমই দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের একটি ধারাবাহিক হল জি বাংলার ‘পিলু’। নতুন এই ধারাবাহিকটি অল্প কয়েকদিনের মধ্যে দর্শকের মনে জায়গা করে নিয়েছে। এমনকি টিআরপি তালিকাতেও পিলুর স্থান বেশ ভালো। গানে গানে তৈরি হবে আহির এবং পিলুর প্রেম কাহিনী। খানিকটা ভিন্ন স্বাদের গল্প নিয়েই হাজির হয়েছেন ধারাবাহিক নির্মাতারা।

ধারাবাহিকে কেন্দ্রীয় চরিত্র ভূমিকায় অভিনয় করছে জি বাংলা ডান্স বাংলা ডান্সের প্রতিযোগী মেঘা দাঁ এবং মেঘার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন টেলিভিশনের অত্যন্ত পরিচিত মুখ গৌরব রায়চৌধুরী টেলিভিশনের পর্দায় মেঘার এটি প্রথম কাজ। ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকের গল্প বেশ কিছুটা এগিয়েছে। নানা ঘটনা চক্রের মধ্যে দিয়ে পিলু শহরে এসেছে ওস্তাদজি অর্থাৎ আহিরের কাছে গান শিখতে।

আহিরের হাত ধরে পিলু গুরুজি আদিত্য নারায়নের সুরমন্ডলে উপস্থিত হয়েছে। ধারাবাহিকে নানা ঘটনার মাধ্যম থেকেই দর্শকরা জানতে পারে সুরমন্ডলের গুরুজি অর্থাৎ আদিত্য নারায়ন পিলুর নিজের বাবা। কিন্তু পিলু বা তার গুরুজির বাড়ির লোকজন কেউ কিছু জানে না এই ব্যাপারে। ছোট থেকে তার বাবার পরিচয় জানেনা পিলু যার কারণেই গুরুজির দ্বিতীয় স্ত্রী পিলুকে অপমান করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। তার মায়ের শিক্ষায় গুরুকুল থেকে বেরিয়ে আসে সে।

অন্যদিকে গুরুজি আহির কে আদেশ দেয় পিলুকে গুরুকুলে আবার ফিরিয়ে আনতে। সেই আদেশ মেনেই আহির পুরুলিয়ার গ্রামে ফিরিয়ে আনতে যায় পিলুকে এবং সেখানেই ঘটনাচক্রে টুসু পরবে একে অপরের সঙ্গে মালাবদল হয় এবং সেখানকার বাসিন্দারা বিশ্বাস করে যদি কারোর মালাবদল হয়ে যায় তাহলে তাদের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক তৈরি হয়। আর অন্যদিকে হনুমানজির কাছে পিলু ইশারা চাইতে গেলে হনুমানজির পূজার সিঁদুর পিলুর সিঁথিতে লেগে যায়।

আর সেই সিঁদুর মাথা নিয়েই পিলু আবার গুরুকুলে ফিরে আসে আহির এর সঙ্গে। পিলুর মাথায় সিঁদুর দেখে গুরুজীর স্ত্রী পিলুকে নানান ধরনের প্রশ্ন করতে থাকে এবং সেই উত্তরে পিলু বলে হনুমানজির আশীর্বাদ সিঁদুর তাই সে সেই সিঁদুর মুছতে পারবে না। হাজারবার বলা সত্ত্বেও পিলু সেই সিঁদুর কিছুতেই রাজি হয় না। এমনকি আহিরও তাকে বোঝায় যে সে যেন এই সিঁদুর মুছে ফেলে না হলে পরে এই নিয়ে জলঘোলা হবে। কিন্তু তাতেও রাজি হয়না সে। এবারে আগামী পর্বে দেখা যাবে এর পরিণতি কি হতে চলেছে।

Back to top button