বাংলা সিরিয়াল

‘হীরের হার পড়বে খড়ি, আমার ভাগ্যে তো রুপোও জোটেনি’, ঋদ্ধিমানের মা নিজে খড়িকে সিংহ রায় জুয়েলার্স এক্সক্লুসিভ গয়নার সেট পরে বাড়ির পার্টি তে আসার অনুমতি দিল দেখে তেলেবেগুনে জ্বলে উঠলো দ্যুতি

ইতিমধ্যেই গাঁটছড়া ধারাবাহিকে ঋদ্ধি এবং খড়ির মান অভিমান ভেঙে গেছে। আর ঋদ্ধি খড়িকে সিংহ রায় বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে দেখা গিয়েছে। অনেক কাঠ-খড় পুড়িয়ে অবশেষে বউয়ের মনে জায়গা করে নিতে পেরেছে ঋদ্ধি। যেমনটা খড়ি বলেছিল ঋদ্ধিমান যদি খড়ি কে নিজের বাড়ি থেকে সিংহ রায় বাড়িতে সসম্মানে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারলেই তবে খড়ি ঋদ্ধিমান এর সঙ্গে যাবে। তেমনটাই করেছে ঋদ্ধিমান। সসম্মানে নিজের স্ত্রীকে সিংহ রায় বাড়িতে নিয়ে এসেছে সে।

ঋদ্ধিমান এর দাদু এবং ঠাম্মির বিবাহবার্ষিকী দিনই খড়ি কে বাড়ি ফিরিয়ে আনে সে এবং সেটা দেখে বাড়ির প্রত্যেকে দারুণ খুশি। ঠাকুমা আনন্দে জড়িয়ে ধরে খড়ি কে এবং বাকিরাও খড়ির বাড়ি ফিরে আসায় খুশি হয়-কিন্তু দ্যুতি এবং রাহুলের মায়ের মুখ থেকেই বোঝা যাচ্ছিল খড়ির এভাবে ফিরে আসাটা তারা মোটেই পছন্দ করছেন না। এদিকে ঋদ্ধিমান তার দাদুর ঠাম্মির বিবাহ বার্ষিকীর পাশাপাশি খড়ির হাতের কাজের সম্বন্ধে প্রেস মিডিয়াকে জানানোর জন্য বড় করে পার্টির আয়োজন করেছে এবং থেকে সকলের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে খড়ির পরিচয় করিয়ে দেয়। আর তখনই ঋদ্ধির মা জানিয়েছে যে প্রেস মিডিয়ার সামনে খড়িকে সিংহ রায় বাড়ির বড় বউ হিসেবেই আসতে হবে এবং তার জন্য সিংহ রায় দের এক্সক্লুসিভ গয়নার কালেকশন থেকে সবথেকে এক্সক্লুসিভ কালেকশন এর সেট দিয়ে যেন খড়ি নিজেকে সাজিয়ে তোলো।

কিন্তু দ্যুতির মাথায় অন্যরকম প্ল্যান চলছে। সে চায় যে খড়ি কে বাজে সাজিয়ে সকলের সামনে অপমানিত করবে। কিন্তু খড়ি ও ভীষণ চালাক সে নিজের দিদির মতলব ধরে ফেলে। আর তখনই ঋদ্ধির ছোট কাকি আসে খড়ির ঘরে। ঋদ্ধিমানের ঠাকুমা খড়ির জন্য একটি এক্সক্লুসিভ গলার সেট পাঠিয়েছে যেটা পড়ে খড়ি সন্ধ্যাবেলায় সকলের সামনে আসবে এবং এই দেখেই দ্যুতি তো একেবারে জ্বলে পুড়ে শেষ হয়ে যাচ্ছে। কারণ খড়ির ভালো সে কখনোই দেখতে পারে না। আর খড়ি যেখানে এত দামি দামি গয়না পড়ছে সেখানে সে কিছুই পাচ্ছে না। এই দেখে হিংসা হতে থাকে তার। সম্প্রতি এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় গাঁটছড়ার একটি ফ্যান পেজ থেকে আপলোড করা হয়েছে।

Back to top button