বাংলা সিরিয়াল

জামাইষষ্ঠী উপলক্ষে নিজের বউকে নতুন বিশাল দামি ফোন উপহার দিলো ঋদ্ধিমান, ‘গাঁটছড়া’ ধারাবাহিকে ঋদ্ধি এবং খড়ির মিষ্টি মুহূর্তের ভিডিও ভাইরাল

বর্তমানে দর্শকের পছন্দের ধারাবাহিকের তালিকার প্রথম সারিতে রয়েছে স্টার জলসার গাঁটছড়া ধারাবাহিক। পর্দায় সোলাঙ্কি এবং গৌরবের জুটি প্রথমবারই বাজিমাত করেছে। দর্শকদের নজর কাড়তে বেশী সময় লাগেনি এই ধারাবাহিকের। এই ধারাবাহিকের বিভিন্ন চরিত্র গুলি দর্শকদের কাছে অত্যন্ত পছন্দের। টিআরপি তালিকাতেও এই ধারাবাহিক বেশ চমকপ্রদ ফলাফল করছে। প্রতি সপ্তাহতেই ভালো স্থানে জায়গা করে নিচ্ছে এই ধারাবাহিক। কিছুদিন আগেই গিয়েছে জামাইষষ্ঠী, আর বর্তমানে প্রতিটি ধারাবাহিকেই দেখানো হচ্ছে জামাইষষ্ঠী স্পেশাল পর্ব। গাঁটছাড়া ধারাবাহিকেও এই সপ্তাহে চলছে জামাইষষ্ঠীর স্পেশাল পর্ব।

যারা ধারাবাহিকের নিত্য দর্শক তারা প্রত্যেকেই জানেন সিংহ রায় বাড়ির উপর বর্তমানে ঝড় বয়ে যাচ্ছে। আসলে সিংহ রায় জুয়েলার্সের বহু পুরনো কাস্টমারের মেয়ের বিয়ের গয়না চুরি হয়ে গিয়েছে। কিন্তু আসল চোর কে তা এখনো জানা যায়নি। যদিও প্রত্যেকের সন্দেহ রাহুল, দ্যুতি এবং রাহুলের মায়ের দিকেই যাচ্ছে। আর সন্দেহের বশে তাদের সিংহ রায় বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়। কিন্তু খড়ির কোথাও গিয়ে মনে হচ্ছে এবার সমস্ত অন্যায় পেছনের রাহুলরা সম্পূর্ণ ভাবে দোষী নয়। তারা যদি চুরি করে থাকতো তাহলে ইতিমধ্যেই গয়না নিয়ে চম্পট দিত। অন্যদিকে সে ঋদ্ধিমানকেও ব্যাপারটা বোঝায়। কিন্তু যথেষ্ট প্রমাণ না থাকায় কিছুই করতে পারছে না এখনো কেউ। রাহুল দের সিংহ রায় বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার পর দ্যুতি রাহুল এবং তার শাশুড়িকে নিয়ে নিজের বাড়িতে এসে উপস্থিত হয়। অর্থাৎ শেষ পর্যন্ত ভট্টাচার্য্য বাড়িতেই ঠাই নিতে হয় রাহুলদের। অন্যদিকে খড়ি ঋদ্ধিমান ও জামাইষষ্ঠীর নেমন্তন্ন রক্ষা করতে চলে আসে। এসে রাহুল এবং দ্যুতি কে দেখে রীতিমত অবাক হয় তারা। কিন্তু এইসবের মাঝেই রাহুল আবার অন্য প্ল্যান করছে, সেটা আমরা ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকের নতুন প্রমো ভিডিওতে দেখতে পেয়েছি।

কিন্তু এইসব এর মধ্যেও ঋদ্ধি এবং খড়ির প্রেমটা কিন্তু একেবারে জমজমাট হয়ে উঠেছে। ধীরে ধীরে দুজন দুজনের কাছাকাছি আসছে। দুষ্টু মিষ্টি প্রেমের মুহূর্ত দেখানো হচ্ছে ধারাবাহিকে। আর ধারাবাহিকে ফ্যান পেজ থেকে আগামী পর্বের একটি ছোট্ট ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে। সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে জামাই ষষ্ঠী উপলক্ষে খড়ির জন্য নতুন ফোন নিয়ে এসেছে ঋদ্ধিমান। আর সেই ফোনটি উপহার দিয়ে ঋদ্ধিমান বলছে এই ফোনের মাধ্যমে তারা একে অপরের সঙ্গে কানেক্ট থাকবে। আর তার উত্তরে খড়ি বলে যে কানেক্ট থাকার জন্য ফোনের প্রয়োজন নেই। সেটা মনের ব্যাপার। দুজন দুজনের মনের কাছাকাছি থাকলেই সব কিছু টের পাওয়া যায়। আর খড়ি এবং ঋদ্ধির এই মিষ্টি কনভারসেশন রীতিমতো ভাইরাল হয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে।

Back to top button