বাংলা সিরিয়াল

লুচি গরম হওয়া সত্ত্বেও ন্যাতানো লুচি হয়েছে বলে খেলনা পণ্ডিত জি! আহিরের শাসনেই কি আস্তে আস্তে বদলে যাবে মল্লার? সেও আহিরের মত স্ত্রীকে উপযুক্ত সম্মান দিতে শিখবে, নিজের করা অন্যায়ের প্রতিকার নিজেই করবে! পিলুর সাম্প্রতিককালের এপিসোড দেখে বলছেন নেটিজেনরা

জি বাংলার পিলু ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে যে মল্লার যেদিন থেকে আসতে আসতে রঞ্জার প্রতি দুর্বল হয়ে পড়ছে সেদিন থেকেই পন্ডিতজি বিষয়টিকে ঠিক ভাবে নিচ্ছেন না। মল্লার তার হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে, বুঝতে পেরে তিনি নানান রকম ফন্দি আঁটছেন। কিছুদিন আগের একটি এপিসোডে দেখা গেছে যে রঞ্জার সেতার পরীক্ষার বিষয়ের কথা মল্লার পণ্ডিত জি কে বলতে গেলে পন্ডিতজি গৃহত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন। এর ফলে মল্লার অত্যন্ত কষ্ট পেলে মল্লারকে মানসিক কষ্টের হাত থেকে বাঁচাতে রঞ্জা সিদ্ধান্ত নেয় সে সেতার পরীক্ষায় বসবে না। পন্ডিত জি যেমন চায় সে সেরকম কাজ করবে।

এইবার রঞ্জা পণ্ডিতজির জন্য খাবার তৈরি করতে শুরু করে। কিন্তু দেখা যায় লুচি গরম গরম হওয়া সত্ত্বেও সেটিকে ন্যাতানো লুচি বলে খেতে অস্বীকার করেন পন্ডিত জি। মল্লার বলে লুচিটা অতটাও নেতানো লাগছে না এক্ষুনি তো গরম ভিজে নিয়ে এলো একটু খেয়ে দেখো না। পণ্ডিত জি যখন তখন বলে তুমি কি করে জানলে এক্ষুনি ভেজে নিয়ে এলো তুমি কি রান্নাঘরে দাঁড়িয়েছিলে? এরপর খাবার ছেড়ে উঠে যায় পন্ডিতজি।

তখন দেখা যায় মল্লারকে বড় দাদার মতো শাসন করছে আহির। বলছে যে মল্লার তোমার চোখের সামনে তোমার বউকে পন্ডিতজি অপমান করল আর তুমি কিছু বললে না। তোমার জন্য শুধুমাত্র তোমার কথা ভেবে রঞ্জা সেতার পরীক্ষাটা দিল না সারাদিন কষ্ট করে রান্না করলো আর তুমি পন্ডিত জিকে কিছুই বললে না। মল্লার তখন বলছে, বললাম তো আহির‌‌। দাদুর মুখের উপর এর থেকে বেশি কিছু বলা যায় না। আমি তো তোমার মত ন‌ই। তখন আহির বলছে আমি সত্যি কথাটা একমাত্র পন্ডিতজির মুখের উপর বলতে পারি। কেন জানো? কারণ সত্যি কথাটা সব সময় সত্যিই হয় সেটা কখনো মিথ্যে হয়ে যায় না।- এই এপিসোড দেখে ধারাবাহিকের নেটিজেনরা বলছে সেই দিন আর বেশি দূরে নেই যেদিন মল্লারও আহিরের মত হয়ে যাবে আর নিজের করা অন্যায়ের প্রতিকার সে নিজেই করবে।

Back to top button