বাংলা সিরিয়াল

‘ঠাকুর দেবতার ধারাবাহিকে দেবী যোগিনী কে স্পোর্টস ব্রা পরানো হয়েছে!’জি বাংলা শিশু ভোলানাথ ধারাবাহিক দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন নেটিজেনদের এক অংশ!

ধারাবাহিকের ক্ষেত্রে একটি কথা প্রায়ই বলা হয় তা হল, গল্পের গরু গাছে ওঠে। আসলে যে‌কোনো ধারাবাহিক যে বিষয়বস্তু নিয়ে শুরু হয় পরবর্তীকালে দেখা যায় ধারাবাহিকটি ঠিক তার অন্য বিষয় নিয়ে শুরু হচ্ছে। এই নিয়ে নানান রকম সমালোচনা , ট্রোলিং হয় এবং নানান রকম মিম তৈরি হয়। বিষয়টা এতটাই জলভাত হয়ে গেছে যে কোন ধারাবাহিকে কোন অবাস্তব কোন কিছু দেখলে বা একেবারেই অকল্পনীয় কোন কিছু দেখলে মানুষ সেটাকে স্বাভাবিক বলে ধরে নিয়েছে যেন ধারাবাহিক দেখতে বসে বা সিরিয়াল দেখতে বসে বিন্দুমাত্র বাস্তবতার কথা আমরা ভাবতেই পারি না ভাবতে গেলেই একদল মানুষ রে রে করে ওঠেন আর যেকোনো ধারাবাহিক নিয়ে ট্রোল করা বা মিম ও তাই ভীষণভাবে তৈরি হয়।

এই সব ধারাবাহিক নিয়ে যেমন ট্রোল হয় তেমনি মহালয়া নিয়ে ট্রোল হয় কারণ মহালয়াতে দেব দেবীদের কিছু এক্সপ্রেশনে কিছু ভুল হলেই সেটা হয় কারণ মানুষের মনে ধর্ম এবং দেব-দেবী বিষয়ে একটা আলাদা জায়গা আছে। তাই দেব দেবীদের সাজসজ্জা দেব-দেবীদের কথাবার্তা এবং দেবদেবীদের অঙ্গভঙ্গি সবটাই খুব সুন্দর এবং সমীচীন হওয়া দরকার ধারাবাহিকের ক্ষেত্রে হলেও এটাই সত্যি। এর অন্যটা হলে মানুষ সেই ধারাবাহিকটিকে আর আধ্যাত্মিক পর্যায়ে ফেলেন না। সেই ধারাবাহিক নিয়ে ট্রোলিং করতে শুরু করেন। সম্প্রতি যেমন একটি আধ্যাত্মিক ধারাবাহিক নিয়ে ট্রোলিং শুরু হলো।

বেশ কিছুদিন ধরে জি বাংলার গৌরী এলো ধারাবাহিকে গৌরী কে যেভাবে দেবী কালীর অংশ রূপে দেখানো হচ্ছে এবং তারপর নানারকম অবাস্তব জিনিস দেখানো হচ্ছে যা দেখে নেটিজেনরা ভীষণভাবে ক্রুদ্ধ হয়ে উঠেছেন তবে সম্প্রতি আরো একটি ধারাবাহিক নিয়ে দর্শকরা বেশ ক্ষিপ্ত হয়ে আছেন। এই ধারাবাহিকটি আবার পুরোপুরি আধ্যাত্মিক স্তরের একটি ধারাবাহিক। অভিযোগ উঠছে এই ধারাবাহিকে যোগিনীকে একটি স্পোর্টস ব্রা পরানো হয়েছে যা দেখে নেটিজেনেরা বলছেন এটি হিন্দু ধর্মের অবমাননা। একজন নেটিজেন সোশ্যাল মিডিয়ার সরাসরি সেই দৃশ্যের স্ক্রিনশট দিয়ে ক্যাপশনে লিখেছেন যে,

“এটা আমি কি দেখলাম! স্পোর্টস ব্রা! একজন যোগীনির সাজসজ্জা এটা? জী বাংলা হিন্দু ধর্ম কে আর কত অপমান করবে? “গৌরি এলো” তে তো প্রায়ই করছে, “শিশু ভোলানাথ” এ আরও বেশি করছে! একজন যোগীনির এক্সপ্রেসন, পোশাক -আশাক এরকম?দেখে তো শ্রদ্ধার বদলে হাসি পায়!
ধিক্কার Zee Bangla!”

Back to top button