বাংলা সিরিয়াল

‘অন্য সিরিয়ালে দেখালে পরকীয়া, মিঠাইতে সোমের সম্পর্ককে কেন জাস্টিফাই করা হচ্ছে স্ত্রীর উপেক্ষার কথা বলে?’ সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের ক্ষোভ উগরে লিখলেন এক নেটিজেন!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই তে দেখানো হয়েছিল যে সোম তোর্সাকে ভালোবেসে বিয়ে করে মোদক পরিবারের বউ করে আনলেও তোর্সার সোমকে বিয়ে করার পিছনে একটাই কারণ ছিল সিদ্ধার্থের কাছাকাছি থাকা। সোমের প্রতি কোন রকম দুর্বলতা থেকে সে এই বিয়েতে রাজি হয় নি। দিনের পর দিন সোম তোর্সার থেকে ভালোবাসা এক্সপেক্ট করেছে কিন্তু সে বঞ্চিত হয়েছে, তোর্সা তাকে ক্রমাগত ইগনোর করে গেছে। এরপর ফোন দিল্লিতে যায় এবং দিল্লি থেকে ফেরার পরেই তার ব্যবহার বদলে যায় সে তোর্সাকে ইগনোর করতে শুরু করে।

কিন্তু এই সময় থেকেই তোর্সা আবার সোমের প্রতি দুর্বল হতে শুরু করে, অন্যদিকে দেখা যায় সোম তোর্সাকে খুব একটা গুরুত্ব দিচ্ছে না। এর কারণ সোম অন্য একটা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছে, সেই মেয়েটি আবার সম্পর্কে শাক্যর টিচার হয়। সোম সেই মেয়েটির জন্মদিন ধুমধাম করে পালন করে অন্যদিকে তোর্সা নিজের অ্যানিভার্সারির জন্য গোটা বাড়ি সাজিয়ে সোমের জন্য অপেক্ষা করতে থাকে, সোম আসে না, শেষমেষ সোমের ছবি নিয়ে কেক কাটা হয়।

এই বিষয়টা নিয়ে যখন ক্রমাগত কথা উঠছে যে কেন সোম এমনটা করছে এটা ঠিক নয়, তখন একদল মানুষ সোমের ব্যবহারটাকে জাস্টিফাই করে বলতে থাকে সে দীর্ঘদিন তোর্সার কাছ থেকে উপেক্ষিত হতে হতে আজ এমনটা হয়েছে, এই যুক্তিকে মানতে রাজি নন আরেকদল মানুষ তাদের কথায় খারাপটা খারাপই। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক কখনোই বৈধ নয় আর সেটা যেখানেই দেখানো হোক না কেন সেটা খারাপ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন নেটিজেন এই নিয়ে লিখেছেন,“বিবাহিত জীবনে খুশি না থাকলে সেটা থেকে বেরিয়ে এসে নতুন করে শুরু করার অপশন আছে। একটা সম্পর্কে থাকা অবস্থায়, স্ত্রী থাকা অবস্থা আবার আরেকটা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়াকে কি বলে সেটা নিশ্চয়ই আলাদা করে বলে বোঝাতে হবেনা! এটাকে দেখছি অনেকে পজিটিভলি নিচ্ছে, কেন? অন্য সিরিয়ালে এমনটা দেখালে যদি সেটাকে সেই বিশেষ শব্দটা দিয়ে সম্বোধন করা হয়, তবে মিঠাইয়ের বেলায় তা নয় কেন? স্যরি, এটা পজিটিভলি নেওয়া বা সাপোর্ট করার কোনো বিষয়ই নয়।

#মিঠাই”

Back to top button