বাংলা সিরিয়াল

গীতার ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে একে অপরকে বিয়ে করলেও নবাব নন্দিনী একে অপরকে মন থেকে মানতে পারছে না! দুজনেই মনে করছে একজন অপরজনকে ফাঁসিয়েছে!

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘নবাব নন্দিনী’তে দেখা যাচ্ছে যে, এস আর কে পুরোপুরি দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার পর নন্দিনীর পরিবার পথে বসে। অন্যদিকে নন্দিনীর বিয়েও ভেঙে যায়, সর্বসান্ত হয়ে তাদের তখন মাথা গোঁজার ঠাঁই টুকুও নেই তখন‌ই তাদের পাশে দাঁড়ায় বিমল। বিমল হলো নন্দিনীর বাবার বন্ধু, একেই একসময় ধনগৌরবে মত্ত হয়ে অপমান করেছিলো এস আর কে। সেই চরম বিপদের দিনে বন্ধুর পরিবারের প্রধান সহায় হয়ে ওঠে বিমল।

নবাব নন্দিনীতে সম্প্রতি দেখানো হচ্ছে যে বিমলের স্ত্রী গীতার ষড়যন্ত্রে ফেঁসে গেছে নবাব। নন্দিনীকে কতগুলো লোক মিলে কিডন্যাপ করেছে সেটা দেখে নবাব ঠিক সময়ে এসে নন্দিনীকে বাঁচায়। কিন্তু নন্দিনী সবার সামনে নবাব কেই ভুল বুঝে সে ভাবে নবাব তাকে কিডন্যাপ করেছে। এরপর এই ধারাবাহিকে দেখা যায় যে বিমলের স্ত্রী গীতা জোর করে বলছে নন্দিনীকে সে ঘরে তুলবে না, নন্দিনীকে নবাবকেই বিয়ে করতে হবে। পরিস্থিতির শিকার হয়ে নবাব নন্দিনী বাধ্য হয় একে অপরকে বিয়ে করতে।

গীতবিতান বাড়ির নতুন বৌ হয়ে এলো নন্দিনী। কিন্তু নবাব আর নন্দিনী কেউই কাউকে মেনে নিতে পারছে না। দুজনেই মনে করছে একজন অন্যজনকে ফাঁসিয়েছে। নন্দিনী ভাবছে নবাব তাকে ফাঁসিয়েছে আর নবাব ভাবছে নন্দিনীকে বাঁচাতে গিয়ে সে ফেঁসে গিয়েছে। অন্যদিকে পাড়ার সব বৌদিরা নন্দিনীকে দেখতে এসেছে তারা নন্দিনীকে দেখে খুব খুশি বলছে নবাবের বৌ কি সুন্দর পুতুল পুতুল দেখতে হয়েছে।

অন্যদিকে দেখা যাচ্ছে কমলিকা প্রথমে নবাবের বউকে দেখে একটা বড় ধাক্কা পেলেও পরে সে বুঝতে পারে নবাব নন্দিনী একে অপরের বিপক্ষে দাঁড়িয়ে আছে তাই খুব ঠান্ডা মাথায় এসে কাজ করে এবং তার শাশুড়িকে বরণের ডালা নিয়ে এসে সে বলে,‘আমার ছোট জা কে বরণ করে তুলুন’। এইভাবে এগিয়ে চলছে নবাব নন্দিনী ধারাবাহিক। ভবিষ্যতে কি নবাব নন্দিনী একে অপরকে মেনে নেবে? সেটা বলবে সময়।

Back to top button