বাংলা সিরিয়াল

মুসুরির ডাল, ছোলার ডাল ইত্যাদি দিয়ে বানান প্রসাধনী দ্রব্য, দিদি নম্বর ১ এর মঞ্চে ছক ভাঙার গল্প দেবপ্রিয়ার, ভাইরাল ভিডিও

লকডাউন এর পর থেকে সবাই ঘরে বসে কম বেশি ছোটখাটো ব্যবসা শুরু করেছে। এর আগে অবশ্য মহিলারা স্বাধীনভাবে নিজেদের জন্য কিছু করতে চেয়েছেন। আর সে রকমই একজন হলেন দেবপ্রিয়া দত্ত। দেবপ্রিয়া নিজের ব্যবসার কথা তুলে ধরলেন সকলের সামনে। ঘরোয়া পদ্ধতিতে নিজের হাতে সমস্ত রকম প্রসাধনী দ্রব্য তৈরি করে বিক্রি করে দেবপ্রিয়া। ঐদিন দিদি নাম্বার ওয়ান এর মঞ্চে এসে নিজের এই যাত্রাপথের কথা তুলে ধরলেন তিনি।

মায়ের রান্না ঘরে থাকা বিভিন্ন জিনিস দিয়েই প্রথম কাজ শুরু করেন তিনি। প্রথম দিন রান্নাঘর থেকে একটু গোবিন্দভোগ, আতপ চাল, একটু মুসুরির ডাল, অল্প ছোলার ডাল নিয়ে সুন্দর করে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নেন। এরপর সেগুলি মিক্সারগ্রাইন্ডারে পিষে নেন। এরপর চন্দন পাউডার নিমের পাউডার মিশিয়ে একসাথে পাউডার বানানো। ২৪০ টাকা দিয়েই শুরু করেছিল নিজের এই ব্যবসা। কমলালেবুর খোসা রোদে শুকিয়ে সেগুলি গুঁড়ো করে মিশ্রণটিকে মধুর শিশিতে ভরে নাম দেন ‘উবটান’ পাউডার। এরপর সেগুলি ফেসবুকে প্রচার শুরু করেন। প্রথমদিন মোট ১০ জনের কাছে বিক্রি করেছিলেন এবং তার প্রথম আয় ছিল ১৫০ টাকা। সকলের থেকেই তিনি বেশ ভালো প্রতিক্রিয়া পেয়েছেন। তাই এরপর ঘরোয়া পদ্ধতিতে প্রসাধনী সামগ্রী তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেন।

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় তার কাস্টমার ছড়িয়ে রয়েছে। এছাড়াও ব্যাঙ্গালোরে তিনি এখন প্রসাধনী সামগ্রী তৈরি করার জন্য ট্রেনিং নিচ্ছেন। প্রথমে তিনি জিনিস বানিয়ে নিজের উপর পরীক্ষা করে দেখেন এরপর সেই প্রোডাক্ট বাজারে ছাড়েন। দিদি নাম্বার ওয়ান এর মঞ্চে এসে নিজের সমস্ত গল্প ভাগ করে নেন সকলের সঙ্গে। রচনা ব্যানার্জি কেও নিজের তৈরি প্রসাধনী সামগ্রীর কিছু জিনিস উপহার দেন।

Back to top button