বাংলা সিরিয়াল

‘মাই হাজব্যান্ড ইজ‌ এ স্মার্ট বেবি’ টুয়েলভ পাশ মিতুলের ইংরেজি শুনে নেটিজেনদের প্রশ্ন,‘করোনার সময় পাশ করেছিলো নাকি’?

ধারাবাহিকের টিআরপি বাড়ানোর জন্য অনেক সময় গল্পের গরুকে গাছে তুলে দেওয়া হয় আর সেই নিয়ে দর্শকদের মধ্যে হাসাহাসি, ট্রোলিং ইত্যাদি লেগেই থাকে। সম্প্রতি জি বাংলার একটি ধারাবাহিকের প্রোমোতে এমন একটি বিষয় দেখানো হয়েছে যা নিয়ে ট্রোলিং শুরু হয়েছে। জি বাংলার ‘খেলনা বাড়ি’র সাম্প্রতিক কালের একটি প্রোমো সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করা হয়েছে।

‘খেলনা বাড়ি’ ধারাবাহিকের নতুন প্রোমো তে দেখানো হচ্ছে যে, গুগলিকে স্কুলে ভর্তি করাতে মিতুল আর ইন্দ্রজিৎ গিয়েছে। সেখানে গিয়ে মিতুল ভুলভাল ইংরেজি বলতে শুরু করে, নিজের বক্তব্য রাখতে গিয়ে মিতুল বলে, “আই অ্যাম মিতুল পাল। মাই হাসবেন্ড ইস ইন্দ্রজিৎ লাহিড়ী। মাই হাজবেন্ড ইজ এ স্মার্ট বেবি।” এরপর যখন ইন্টারভিউ বোর্ডের সদস্যরা তাকে বলে আপনার পড়াশোনা কতদূর? তখন মিতুল বলে, ১২ অবধি।

এরপর ইন্টারভিউ বোর্ডের লোকজনেরা বলে যে আপনার স্ত্রীর পড়াশোনা এত কম তাই আপনাদের মেয়েকে স্কুলে ভর্তি করাতে গেলে ডোনেশন লাগবে। ইন্দ্রজিৎ ডোনেশন দিতে রাজি হলেও মিতুল ডোনেশন দিতে রাজি হয় না। সে উঠে দাঁড়িয়ে বলে, না আমার মেয়ে ডোনেশন দিয়ে স্কুলে ভর্তি হবে না। এরপর ইন্দ্রজিৎ যখন বলে, শুধুমাত্র আপনার জন্য আজকে গুগলিকে এত ভালো একটা স্কুলে ভর্তি করাতে পারলাম না।

তখন মিতুল বলে আমার গুগলি অবশ্যই এই স্কুলে পড়বে, তবে কোনরকম ডোনেশন বা ঘুষ না দিয়েই সে এই স্কুলে ভর্তি হবে। এখন কী ভাবে গুগলিকে এই ইংরেজি মিডিয়াম স্কুলে ভর্তি করাবে মিতুল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে? অনেকে ভাবছেন মিতুল গুগলিকে স্কুলে ভর্তি করানোর জন্য হয়তো এবার নিজে ইংরেজি শিখবেন। তবে এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হয়েছে। অনেকেই প্রশ্ন করেছেন যে ক্লাস টুয়েলভ অবধি পড়াশোনা করেও মিতুল যা ইংরেজি বলছে তা দেখে মনে হচ্ছে সে করোনার সময় এইচএস পরীক্ষা দিয়েছিল!

 

View this post on Instagram

 

A post shared by mithai prem (@mithailoves)

Back to top button