বাংলা সিরিয়াল

‘ধুলোকণা শুধু বিয়ে দেখিয়ে টপার হয়, তাহলে মিঠাই সিরিয়াল কি ধোয়া তুলসীপাতা?’ বাবার বিয়ে দেখিয়ে ধুলোকণা ভক্তদের তীব্র আক্রমণের মুখে পড়ল ‘মিঠাই’

একটা সময় মানুষ নিজেদের সঙ্গী হারালে সারাটা জীবন একাকী থাকতো। কিন্তু ধীরে ধীরে যুগ বদলেছে, সময় বদলেছে,ধ্যান ধারণা বদলেছে। বর্তমানে মানুষ নিঃসঙ্গতা কাটাতে বেশি বয়সে হলেও বিয়ে করে। হয়তো ছেলে মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে, ছেলে মেয়েরা উপযুক্ত হয়ে গিয়েছে, তখন কেউ প্রবীণ বয়সেই বিয়ে করলেন। আসলে বয়স কালে মানুষের একজন বন্ধুর দরকার হয়। সেই বন্ধুর প্রয়োজনে অনেক সময় বেশি বয়সে মানুষ বিয়ে করেন আবার অনেক সময় দেখা যায় তাদের ছেলেমেয়েরা খুশি মনে বাবা মায়ের বিয়ে দেয়। সম্প্রতি এরকমটাই দেখানো হয়েছে মিঠাই ধারাবাহিকে।

ঝগড়া হলে একজন আরেকজনকে বলে,“ তোকে তোর বাবার বিয়ে দেখিয়ে ছাড়বো। ” কিন্তু সেটা যে বাস্তবে অসম্ভব সেটা সবাই জানে। সম্প্রতি মিঠাই সিরিয়ালের সিদ্ধার্থ তার বাবার বিয়ে দেখেই ছাড়লো। হ্যাঁ একা নিঃসঙ্গ বাবাকে আর একা থাকতে না দিয়ে তার বিয়ে দিল সিদ্ধার্থ। ধারাবাহিকের প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে যে মিঠাই বলছে তার জীবনে খালি একটাই অভাব তাহলো শাশুড়িমায়ের! তারপর দেখানো হচ্ছে যে অনুরাধার সঙ্গে বিয়ে হচ্ছে সিদ্ধার্থের বাবা সমরেশের। শাশুড়ি মাকে দেখে মিঠাই খুব খুশি।

আসলে সমরেশ একাকী কিভাবে কষ্ট পায় সেটা মিঠাই দেখেছিলো! সেই যে সিদ্ধার্থকে বুঝিয়ে অনুরাধার সাথে সমরেশের বিয়ে দেওয়াবে তা বোঝা যাচ্ছে! এই প্রোমো সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর মিঠাই ভক্তরা খুব খুশি। তারা অনেকদিন মিঠাইয়ের কোন প্রোমো পায়নি। তাই এই প্রোমো তাদের মন ভাল করে দিয়েছে। তবে অনেকেই এই প্রোমো দেখে কটাক্ষ করেছেন। আসলে লালন ফুলঝুরির বিয়ের সময় ধুলোকণা টপার হ‌ওয়ায় মিঠাই ভক্তরা বলেছিলো যে, শুধুমাত্র বিয়ে দেখিয়েই ধুলোকণা টপার হয়ে গেলো, আর কোন কনটেন্ট নেই। এইবার ধুলোকণা ভক্তরা বলছেন,‘মিঠাই তাহলে কী করছে?’

 

View this post on Instagram

 

A post shared by mithai prem (@mithailoves)

Back to top button